এ সময়ের অন্যতম জপ্রিয় উপস্থাপক শাহরিয়ার নাজিম জয়ের একটি লাইভ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মিশা সওদাগর ও হিরো আলম।

জয় মিশা সওদাগরকে জিজ্ঞেস করলেন, আপনাদের চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কি সদস্য হিরো আলম? এই প্রশ্ন কয়েকবারেও বুঝতে পারেননি মিশা।

হিরো আলমকে চিনতেই পারছিলেন না তিনি। মিশা বলেন, ‘ও হ্যাঁ তিনি তো আমাদের আজীবন সদস্য। কিন্তু জায়েদ খান সেই ভুল ভাঙেন।’

জায়েদ বলেন, ‘না না, আমার প্রেসিডেন্ট বুঝতে পারেননি। একজন আছে যে মিউজিক ভিডিও করে, উনার কথা বলছেন।

তিনি জয়ের প্রশ্নের উত্তর হিসেবে বলতে শুরু করেন না না হিরো আলম নামে আমরা কাউকে চিনি না। আমরা হিরো বলতে চিনি নায়ক রাজ রাজ্জাক,

হিরো বল৯তে চিনি আলমগীর সাহেবকে… হিরো আলম নামে কাউকে চিনি না।’যার প্রযোজনা আমি নিজেই করেছি, নিজেই হিরো।

জায়েদ খানের এই বক্তব্য সহজভাবে নিতে পারেননি হিরো আলম। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় শাহরিয়ার নাসিম জয়ের এই লাইভের সঙ্গে নিজের ভিডিও জুড়ে দিয়ে বলছেন, জায়েদ খান আপনি আমাকে চেনেন না, আমি এর আগে একটা সিনেমা করেছি মার ছক্কা। আমার দ্বিতীয় ছবি সাহসী হিরো আলম। যার প্রযোজনা আমি নিজেই করেছি, নিজেই হিরো।

জায়েদ খানের এই বক্তব্য সহজভাবে নিতে পারেননি হিরো আলম। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় শাহরিয়ার নাসিম জয়ের এই লাইভের সঙ্গে নিজের ভিডিও জুড়ে দিয়ে বলছেন, জায়েদ খান আপনি আমাকে চেনেন না, আমি এর আগে একটা সিনেমা করেছি মার ছক্কা। আমার দ্বিতীয় ছবি সাহসী হিরো আলম। যার প্রযোজনা আমি নিজেই করেছি, নিজেই হিরো।যার প্রযোজনা আমি নিজেই করেছি, নিজেই হিরো।

আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলমের সাথে যোগাযোগ করা হয়। তিনি বলেন, ‘আমকি এই মুহূর্তে বগুড়ায় আছি। ভিডিও প্রসঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন, জায়েদ খান ভাই আমাকে তুচ্ছ করে কথা বলছে। এতে আমি অপমানিত হয়েছি। উনি এইভাবে কথা বলতে পারেন না। উনাকে কয়জন চেনে? আপনারা জানেন আমাকে কয়জন চেনে, আমাকে ভারতের বিভিন্ন এলাকা থেকে ডেকে নিয়ে যায়। উনি নিজের কথা না ভেবে পরকে এভাবে তুচ্ছ করে বলেই চলচ্চিত্রের এই অবস্থা।’যার প্রযোজনা আমি নিজেই করেছি, নিজেই হিরো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here