কি শিরোনাম পড়ে অবাক হচ্ছেন? অবাক হবার মতই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পা’ঞ্জাব প্রদেশে। অস্টেলিয়ার ভিসা পেতে আপন বোনকে বিয়ে করেছেন মায়ের পেটের ভাই।এঘটনার পর নড়ে-চড়ে বসেছে দেশটির পুলিশ।ভারতের ‘সংবাদমাধ্যমে তথ্যটি নিশ্চিত করেছে।

ওই সংবাদে আরও বলা হয়েছে, মেয়ের ভাই স্থা’য়ী ভাবে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করে আসছিলেন। তাই বোনকেও সে দেশের নাগরিকত্ব পাইয়ে দিতে পরিচয় গোপন করে পাঞ্জাব কোর্টে গিয়ে বিয়ে করেন তারা। এরই মাঝে বোনটির অ’স্ট্রেলিয়ার ভিসা নিশ্চিত হয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

এঘটনায় তদন্তে থাকা পুলিশ কর্মকর্তা জয় সিংহ গ’ণমাধ্যমকে বলেন, তদন্ত করে জানতে পেরেছি মেয়েটি অ’স্ট্রেলিয়ার ভিসা পেয়ে গেছে। সে এখন অ’স্ট্রেলিয়ার নাগরিক। তারা আপন ভাই বোনের পরিচয় দিয়েছিল। এমনকি মেয়েটি কয়েকদিন আগে অ’স্ট্রেলিয়ায় গিয়েছিলো,

সেখানে তারা স্বা’মী-স্ত্রী পরিচয়ে ছিল।তিনি আরও বলেন, কেবল বিদেশে যাওয়ার জন্য তারা সমাজ, আইন ও ধ’র্মীয় বিধিনিষেধের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। মিথ্যা পরিচয়ের ভিত্তিতে তারা অস্ট্রেলিয়া কর্তৃপক্ষকেও প্রতারিত করেছেন।

আমরা তাদের আটকে অভিযান অব্যাহত রাখছি। কিন্তু তারা পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।মানুষ বিদেশে যাওয়ার জন্য নানা ফন্দি করে। কিন্তু এমন প্র’তারণার কথা এটাই প্রথম শুনেছি। আমরা আশ্চর্য হয়েছি।এসিডের পরিমাণ বাড়ায় এবং সাইট্রেটের পরিমাণ কমায়।

আরো পরতে পারুন বাংলাদেশ থেকে জাপানে জনশক্তি নিতে দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। তবে চুক্তির শর্ত অনুযায়ী শুধুমাত্র দক্ষ ক’র্মীরাই জাপান যেতে পারবেন। এর জন্য জাপানি ভাষা জানা থাকাও বাধ্যতামূলক।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব রৌ’নক জাহান এবং জাপানের বিচার বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে অধীনস্থ ই’মিগ্রেশন সার্ভিস এজেন্সির কমিশনার সোকো সাসাকি নিজ নিজ দেশের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

রৌনক জাহান বলেন, সহযোগিতা চুক্তির আওতায় সুনির্দিষ্ট শর্তের আওতায় বাংলাদেশ থেকে জাপানে দক্ষ কর্মী পাঠানোর সুযোগ তৈরি হবে। এতে দুই দেশই লাভবান হবে।ইউএনবির খবরে জানানো হয়, আগামী পাঁচ বছর ধরে দুই ক্যাটাগরিতে ১৪টি সেক্টরে কর্মী নেবে জাপান।

এগুলোর মধ্যে রয়েছে, সেবা প্রদান, পরিচ্ছন্নতা ব্যবস্থাপনা, মেশিন পার্টস শিল্প, ইলেক্ট্রনিক্স, নির্মাণ, জাহাজ প্রকৌশল ও নির্মাণ, অটোমোবাইল রক্ষণাবেক্ষণ, উড়োজাহাজ শিল্প, কৃষি, মৎস্য উৎপাদন, খাদ্য ও পানীয় উৎপাদন। জাপানে কাজ পাওয়ার জন্য নির্বাচিত হতে জাপানি ভাষার ওপর পরীক্ষা দিয়ে দক্ষতা প্রমাণ করতে হবে।

আরও নিউজ পড়ুন..
ধ’র্ষণের পর বাবা বললেন, ‘এটাই জ’ন্মদিনের গিফট’

নিজের মেয়ের জন্মদিনে তাকে ধ’র্ষণের অ’ভিযোগ উঠেছে এক বাবার বি’রু’দ্ধে। মেয়ের ১৩তম জন্মদিনে ধ’র্ষণের পর ওই বাবা বললেন, এটাই তোর জ’ন্মদিনের উপহার।স’ম্প্রতি দক্ষিণ আমেরিকার বলিভিয়াতে এই চ’মকে দেয়ার মতো ঘ’টনা ঘ’টেছে। এরই মধ্যে ওই বাবাকে গ্রে’ফ’তার করেছে পুলিশ। ধ’র্ষি’ত মেয়েটিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।জানা গেছে, মেয়ের জন্য জন্মদিনে কোনো উপহার না আনতে পারায় তাকে ধ’র্ষ’ণ উপহার দিয়েছে বলে জানিয়েছেন ৩২ বছর বয়সী ওই বাবা।

পু’লিশ জানায়, মেয়েকে ধ’র্ষণ করার সময় স্ত্রী হা’তেনাতে ধরে ফেললে তাকে প্রা’ণে মা’রার হু’মকি দেন। এরপরই স্ত্রী পুলিশে খবর দেয়।আরো জানা যায়, মেয়ের জন্মদিন উপলক্ষে তার সঙ্গে আলাদা করে কিছু সময় কাটাতে চায় বলে তার স্ত্রী’কে জানায় ওই ধ’র্ষ’ক বাবা। এরপরই মেয়ের রুমে গিয়ে তাকে ধ’র্ষ’ণ করেন।

পু’লিশি জে’রায় ওই বাবা জানিয়েছেন, তার কাছে টাকা না থাকায় মেয়ের জন্য কোনো উপহার কিনতে পারেননি। সেই জন্যই মেয়েকে এভাবে ক’ষ্ট দিয়েছেন। ধ’র্ষ’ণ করে তাকে জ’ঘ’ন্য কিছু সময় ও স্মৃতি উপহার দিতে চেয়েছেন।

আরো পরুন ক্যাসিনো সম্রাটের রিমান্ডের জন্য কাঁদলেন তার আইনজীবী আফরোজা শাহানাজ অ’স্ত্র ও মা’দকের পৃথক দুটি মা’মলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ‘ক্যাসিনো কিং’ ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে ১০ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক তোফাজ্জল হোসেন পুলিশের করা রিমান্ড আবেদনের শুনানি নিয়ে এ আদেশ দেন।

দিন দুপুর ১২টার দিকে সম্রাটকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়।শুনানি শুরু হলে সম্রাটের আইনজীবী আফরোজা শাহানাজ পারভীন (হীরা) তার মক্কেলের বিরুদ্ধে রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন প্রার্থনা করেন। এসময় এই নারী আইনজীবী কিছুটা আবেগপ্রবণ হয়ে উঠেন এবং এজলাসেই কেঁদে ফেলেন। শুনানিতে শাহনাজ পারভীন আদালতকে বলেন, ‘আসামি (সম্রাট) আপনার (আদালত) কাস্টডিতে আছে। হাতকড়া পরানোর কী দরকার? আমরা তার হাতকড়া খুলে দেয়ার প্রার্থনা করছি।’ যদিও তার এই আবেদনে সাড়া দেননি আদালত।

এসময় সম্রাটের এই আইনজীবী আরও বলেন, ‘প্রথমে সম্রাট যুবলীগের রমনা থানা কমিটির আহ্বায়ক ছিলেন। এরপর যুবলীগের ঢাকা দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পরে সভাপতি হন। আমি নিজেও তার কমিটিতে আছি। সম্রাট নেতাকর্মীদের বিপদে-আপদে ঝাঁপিয়ে পড়েন। কুচক্রী মহল মিথ্যা অভিযোগে তার ‍বিরুদ্ধে মা’মলা দিয়েছে।

৬ অক্টোবর ভোরে তাকে কুমিল্লা থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে দুপুর ১টার দিকে তাকে আনা হয় মাল্টিস্টোর বিল্ডিংয়ে। সেটা তার বাসস্থান না, অফিস। সেখানে অনেকেরই যাওয়া-আসার সুযোগ আছে। তাকে ফাঁসানোর জন্য ষড়যন্ত্র হতে পারে।তিনি বলেন, ‘আমি আর আমার স্বামী সেখানে গিয়েছিলাম। আমার স্বামী আমাকে বললো- ওই কার্যালয়ে নেতাকর্মীরা নাকি সেখানে বাজার করে দেয়, চলো, দেখে আসি। সেখানে গিয়ে দেখি, বাজার করা হয়েছে, রান্না হচ্ছে। আমরা সেখান থেকে খেয়েও এসেছি।

আমার স্বামী সেখানের ফ্রিজটি খুলে বাজার দেখে অবাক হন। তার পরদিন পুলিশ সেখান থেকে মা’দক উদ্ধার করলো। আমরা সরকারি দলে না বিরোধী দলে আছি বুঝতেছি না।শাহনাজ পারভীন আদালতকে আরও বলেন, ‘অভিযানের ৬ ঘণ্টা পর মিডিয়াকে সেখানে ঢুকতে দেয়া হলো। কিন্তু অন্যান্য মিডিয়া আগে ঢুকলেও এখানে তা হয়নি। ২০ বছর আগে থেকে ভাল্বের সমস্যায় ভুগছেন সম্রাট। তিনি খুবই অসুস্থ। গত ২৪ সেপ্টেম্বর তার ভাল্ব প্রতিস্থাপনের কথা ছিল। ১০ অক্টোবর সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাথে হাসপাতালে যাওয়ার কথা ছিল। তিনি লিভার ও হার্টের সমস্যায় ভুগছেন।

কথাগুলো বলতে বলতে কণ্ঠ ভারি হয়ে আসে আফরোজা শাহনাজ পারভীর (হীরা)’র। এসময় বারবার চোখ মুছতে মুছতে তিনি বলেন, ‘সম্রাট যদি পালাতে চাইতেন তাহলে যেকোনও মুহূর্তে তা পারতেন। দলকে, নেতাকর্মীদেরকে তিনি ভালোবাসেন। জনপ্রিয়তাই তার জন্য কাল হয়েছে। পরিকল্পিতভাবে তাকে ফাঁসানো হয়েছে। রিমান্ড বাতিল করে তার জামিন প্রার্থনা করছি।

এর আগে দুপুর ১২টার দিকে সম্রাটকে আদালনে নিয়ে আসার সময় সিএমএম আদালত প্রাঙ্গণে তার মুক্তির দাবিতে হাজারো কর্মী-সমর্থক বিক্ষোভ করে ও শ্লোগান দেয়। পরে সেখানে থেকে তাদের বের করে দিয়ে প্রধান গেটে তালা লাগিয়ে দেয় পুলিশ।এদিন সম্রাটের অন্যতম সহযোগী দক্ষিণ যুবলীগের সহ-সভাপতি এনামুল হক আরমানকে মা’দক নিয়ন্ত্রণ আইনের মা’মলায় ৫ দিনের রিমান্ড দেয়া হয়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here