জাইমা রহমানকে নিয়ে দেওয়া বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চাওয়ার দাবি, যা বললেন প্রতিমন্ত্রী

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মেয়েকে নিয়ে মন্তব্য করে অনলাইন-অফলাইনে ব্যাপক সমালোচিত হয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। সেই বক্তব্যের জন্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবিও উঠেছে।

অনলাইন সারাবাংলা এ ব্যাপারে প্রতিমন্ত্রীর মন্তব্য চাইলে তিনি আরও বলেন, ‘সমালোচকদের আমি বলব, আসসালামু ওয়ালাইকুম। আপনি ভালো থাকেন, সুখে থাকেন, শান্তিতে থাকেন। আপনাদের এই গালিগালাজ আমাকে কোনোরকম ক্ষতি করতে পারবে না।’

রোববার এশিয়ান টিভির লাইভে প্রতিমন্ত্রী কথা বলেন রাষ্ট্রধর্ম নিয়ে। তার মতে, রাষ্ট্রের কোন ধর্ম হতে পারে না। রাষ্ট্র একটি জড় পদার্থ, রাষ্ট্র একটি ভূখণ্ড। দেশের কখনো ধর্ম থাকতে পারে না। দেশের মানুষদের ধর্ম থাকতে পারে।

বিভিন্ন ইস্যুতে বক্তব্য দিয়ে আলোচনায় আসা মুরাদ হাসানের জন্য নতুন নয়। ক’দিন আগেই এক সমাবেশে বাহাত্তরের সংবিধানে ফেরার দাবি জানিয়ে নিজ দলের মধ্যেই সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। সংবিধানে বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম ও রাষ্ট্রধর্ম থাকতে পারে না— এমন মন্তব্যও তিনি আরেক অনুষ্ঠানে করেন।

সবশেষ সমালোচনার মুখে পড়লেন জাইমা রহমানকে নিয়ে অশালীন মন্তব্য করে। মুরাদ হাসান জামালপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য। পেশায় চিকিৎসক এই রাজনীতিক স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) ও একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ের পর আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয় তাকে। পরে ২০১৯ সালের মে মাসে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন তিনি।

অনলাইন সারাবাংলা এ ব্যাপারে প্রতিমন্ত্রীর মন্তব্য চাইলে তিনি আরও বলেন, ‘সমালোচকদের আমি বলব, আসসালামু ওয়ালাইকুম। আপনি ভালো থাকেন, সুখে থাকেন, শান্তিতে থাকেন। আপনাদের এই গালিগালাজ আমাকে কোনোরকম ক্ষতি করতে পারবে না।’

রোববার এশিয়ান টিভির লাইভে প্রতিমন্ত্রী কথা বলেন রাষ্ট্রধর্ম নিয়ে। তার মতে, রাষ্ট্রের কোন ধর্ম হতে পারে না। রাষ্ট্র একটি জড় পদার্থ, রাষ্ট্র একটি ভূখণ্ড। দেশের কখনো ধর্ম থাকতে পারে না। দেশের মানুষদের ধর্ম থাকতে পারে।

বিভিন্ন ইস্যুতে বক্তব্য দিয়ে আলোচনায় আসা মুরাদ হাসানের জন্য নতুন নয়। ক’দিন আগেই এক সমাবেশে বাহাত্তরের সংবিধানে ফেরার দাবি জানিয়ে নিজ দলের মধ্যেই সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। সংবিধানে বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম ও রাষ্ট্রধর্ম থাকতে পারে না— এমন মন্তব্যও তিনি আরেক অনুষ্ঠানে করেন।

সবশেষ সমালোচনার মুখে পড়লেন জাইমা রহমানকে নিয়ে অশালীন মন্তব্য করে। মুরাদ হাসান জামালপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য। পেশায় চিকিৎসক এই রাজনীতিক স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) ও একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ের পর আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয় তাকে। পরে ২০১৯ সালের মে মাসে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন তিনি।

সুত্রঃsara bangla

About admin

Check Also

স্ত্রীর এই ছবিটি দেখা মাত্রই, স্ত্রীকে ডিভোর্স দেন স্বামী!

স্বামী যখন তার হাসিমুখ ওলা স্ত্রীর ছবি তোলেন, তখন সবাই মনে করে ইন্টারনেটে এটি সবচেয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.