ন’দীর পা’ড়ে গ্রা’মের সু’ন্দরী মে’য়ের অ’স্থির না’চের ভি’ডিও তু’মুল ভা’ইরাল, (ভি’ডিও)

নদীর ধারে এক গ্রা’মের সুন্দরী তরুণী অ’সাধারন নাচের ভিডিও ইউটিউবে ভা’ইরাল হয়ে গেছে, ওই ভিডিওতে দেখা যায় নদীর ধারে ফাঁকা জা’য়গায় ঐ তরণী ডান্স করছে।

ডান্সের ভিডিও টি আমরা আ’মাদের ওয়ে’বসাইটে শেয়ার করলাম ভিজিটরকে বিনোদন দেওয়ার জন্য, ভিডিওটি ইউটিউব থেকে নেওয়া। ভি’ডিওটি উ’পভোগ করুন আর সবসময় আমাদের সাথেই থাকুন..

আরোও পড়ুন..’আরেক দফা বাড়ছে ভোজ্যতেলের দাম’, আরেক দফা বাড়ছে ভোজ্যতেলের দাম। আন্তর্জাতিক বাজারের কারণে বো’তলজাত ও খোলা সয়াবিন তেলের দাম প্রতি লিটারে ৭ টাকা বা’ড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আ’মদানি ও অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য (আইআইটি) অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব এ এইচ এম স’ফিকুজ্জামানের নে’তৃত্বে অনুষ্ঠিত নিত্যপণ্যের মজুত পরিস্থিতি, আ’মদানি ও দাম নির্ধারণ নিয়ে বৈঠকে তে’লের দাম বা’ড়ানোর প্রস্তাব করা হয়।

বাণিজ্যমন্ত্রী ও সচিব এ প্রস্তাব অনুমোদন দিলে তা বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রি:ফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যা’সোসিয়েশন আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবে।

বৈঠক শেষে অতিরিক্ত সচিব সফিকুজ্জামানের সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। বৈঠকে ভোজ্যতেল উৎপাদন ও বিতরণকারী কো’ম্পানিগুলোর শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম (প্রতি লিটার) আমরা ১৫৩ টাকা নির্ধারণ করেছিলাম। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বেড়ে যা’চ্ছিল তাই তারা ৮-১০ দিনের মধ্যে মূল্যবৃদ্ধির আবেদন ক’রেছিলেন।

২০১১ সালের আইন অনুযায়ী প্রতি ১৫ দিন অন্তর ট্যারিফ কমিশন অ্যানালাইসিস করে সুপারিশ করবে। আমরা বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, রিফাইনারিদের সঙ্গে আলোচনা করে মূল্য নির্ধারণ করি।

পরে রিফাইনারি অ্যাসোসিয়েশন তাদের অফিসিয়াল প্যাডে এটা ডিক্লেয়ার করে। অতিরিক্ত সচিব বলেন, গত মাসে উনারা (তেল উৎপাদনকারী) যে আবেদন করেছিলেন গত ৪ অক্টোবর ট্যারিফ কমিশন চিনি ও তেলের ক্ষেত্রে আমাদের রিপোর্ট দেয়।

পেঁয়াজের বাজার অস্থির ছিল। গত এক সপ্তাহে আমরা স্পেশাল ফোকাস দিয়ে, আল্লাহ রহম করেছে, পেঁয়াজের বাজারটা মোটামুটি একটা ভালো পর্যায়ে নিয়ে আসতে পেরেছি।

তেলের বিষয়ে আজকের বৈঠকের সিদ্ধান্ত তুলে ধরে তিনি বলেন, উনাদের (রিফাইনারি কোম্পানি) প্রস্তাব ছিল বোতলজাত প্রতি লিটার সায়াবিন তেল ১৬৮ টাকা করার। ট্যারিফ কমিশন একাধিকবার বসে অ্যানালাইসিস করে ১৬২ টাকা (বোতলজাত সায়াবিন তেল) করার সুপারিশ করেছে। এটা ছিল সেপ্টেম্বর মাসে অ্যাভারেজ রিপোর্ট

পরে রিফাইনারি অ্যাসোসিয়েশন তাদের অফিসিয়াল প্যাডে এটা ডিক্লেয়ার করে। অতিরিক্ত সচিব বলেন, গত মাসে উনারা (তেল উৎপাদনকারী) যে আবেদন করেছিলেন গত ৪ অক্টোবর ট্যারিফ কমিশন চিনি ও তেলের ক্ষেত্রে আমাদের রিপোর্ট দেয়।

পেঁয়াজের বাজার অস্থির ছিল। গত এক সপ্তাহে আমরা স্পেশাল ফোকাস দিয়ে, আল্লাহ রহম করেছে, পেঁয়াজের বাজারটা মোটামুটি একটা ভালো পর্যায়ে নিয়ে আসতে পেরেছি।

তেলের বিষয়ে আজকের বৈঠকের সিদ্ধান্ত তুলে ধরে তিনি বলেন, উনাদের (রিফাইনারি কোম্পানি) প্রস্তাব ছিল বোতলজাত প্রতি লিটার সায়াবিন তেল ১৬৮ টাকা করার। ট্যারিফ কমিশন একাধিকবার বসে অ্যানালাইসিস করে ১৬২ টাকা (বোতলজাত সায়াবিন তেল) করার সুপারিশ করেছে। এটা ছিল সেপ্টেম্বর মাসে অ্যাভারেজ রিপোর্ট

About admin

Check Also

আনন্দের রেশ কাটতে না কাটতেই এবার মৌসুমীর ঘরে শোকের ছায়া

সপ্তাহ খানেক আগেই অর্থাৎ ২৬ তারিখ খুবই আনন্দের সাথে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় জুটিমৌসুমী ও ওমর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.