কাঁচা বাদাম বিক্রেতাকে কত টাকা দিলেন মদন মিত্র?

বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম মানুষের অন্যতম অনুষঙ্গ হয়ে পড়েছে! এসব মাধ্যমে কখন কী ভাইরাল হয়, তা কেউ-ই বলতে পারেন না! আর মিম জেনারেশনে কোনো কারণ ছাড়াই যেকোনো বিষয় ট্রেন্ডিং হয়ে উঠতে পারে।

তারই অন্যতম একটি উদাহরণ ফেরিওয়ালার গাওয়া ‘কাঁচাবাদাম’ শিরোনামের গানটি; যা গেয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের ভুবন বাদ্যকর।‘বাদাম বাদাম দাদা কাঁচা বাদাম, আমার কাছে নাই গো বুবু ভাজা বাদাম, আমার কাছে পাবে শুধু কাঁ…চা বাদাম’ গানের কথাগুলো এখন মানুষের মুখে মুখে। গানটি গেয়ে রাতারাতি আলোচনায় উঠে এসেছেন বাদাম বিক্রেতা ভুবন।

সম্প্রতি কলকাতার চারু মার্কেট এলাকায় গানটি গাইছিলেন তিনি। সেখানে ভোটের প্রচারে ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক ও সাবেক মন্ত্রী মদন মিত্র। গান শুনে ভুবনের কাছে যান তিনি। ভুবনের বেশ প্রশংসা করেন তিনি। তাকে বলতে শোনা যায়, ‘আহা! লাভলি।’

উপস্থিত সংবাদকর্মীদের উদ্দেশে মদন মিত্র বলেন, ‘এত ভালো গান গেয়েছে…বিধায়ক হিসেবে আমার যে বেতন, তার থেকে ওকে (ভুবন) ২০ হাজার টাকা দিলাম।’ সে সময় উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশে ‘বাদাম, বাদাম, বাদাম’ বলে হাঁক দেন মদন।

তার সঙ্গে সুর মেলান ভুবন।প্রসঙ্গত, ভুবন বাদ্যকর বাদাম বিক্রি করেন। ভাজা বাদাম নয়, কাঁচাবাদাম। ভাজা বাদামের অপকারিতা আর কাঁচাবাদামের উপকারিতা নিয়ে একটি গান বেঁধেছেন তিনি।

এই গানের কথা যুক্ত হয়েছে টাকা ছাড়াও কীসের বিনিময়ে বাদাম বিক্রি করেন, যেমন ভাঙা মোবাইল, সিটি গোল্ডের পুরনো জিনিস, মাথার চুল ইত্যাদি।গানের কথায় এসব আর অদ্ভুত সুর তরুণরা ইন্টারনেটে পাওয়া মাত্রই লুফে নেয়।

বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম মানুষের অন্যতম অনুষঙ্গ হয়ে পড়েছে! এসব মাধ্যমে কখন কী ভাইরাল হয়, তা কেউ-ই বলতে পারেন না! আর মিম জেনারেশনে কোনো কারণ ছাড়াই যেকোনো বিষয় ট্রেন্ডিং হয়ে উঠতে পারে।

তারই অন্যতম একটি উদাহরণ ফেরিওয়ালার গাওয়া ‘কাঁচাবাদাম’ শিরোনামের গানটি; যা গেয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের ভুবন বাদ্যকর।‘বাদাম বাদাম দাদা কাঁচা বাদাম, আমার কাছে নাই গো বুবু ভাজা বাদাম, আমার কাছে পাবে শুধু কাঁ…চা বাদাম’ গানের কথাগুলো এখন মানুষের মুখে মুখে। গানটি গেয়ে রাতারাতি আলোচনায় উঠে এসেছেন বাদাম বিক্রেতা ভুবন।

সম্প্রতি কলকাতার চারু মার্কেট এলাকায় গানটি গাইছিলেন তিনি। সেখানে ভোটের প্রচারে ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক ও সাবেক মন্ত্রী মদন মিত্র। গান শুনে ভুবনের কাছে যান তিনি। ভুবনের বেশ প্রশংসা করেন তিনি। তাকে বলতে শোনা যায়, ‘আহা! লাভলি।’

উপস্থিত সংবাদকর্মীদের উদ্দেশে মদন মিত্র বলেন, ‘এত ভালো গান গেয়েছে…বিধায়ক হিসেবে আমার যে বেতন, তার থেকে ওকে (ভুবন) ২০ হাজার টাকা দিলাম।’ সে সময় উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশে ‘বাদাম, বাদাম, বাদাম’ বলে হাঁক দেন মদন।

তার সঙ্গে সুর মেলান ভুবন।প্রসঙ্গত, ভুবন বাদ্যকর বাদাম বিক্রি করেন। ভাজা বাদাম নয়, কাঁচাবাদাম। ভাজা বাদামের অপকারিতা আর কাঁচাবাদামের উপকারিতা নিয়ে একটি গান বেঁধেছেন তিনি।

এই গানের কথা যুক্ত হয়েছে টাকা ছাড়াও কীসের বিনিময়ে বাদাম বিক্রি করেন, যেমন ভাঙা মোবাইল, সিটি গোল্ডের পুরনো জিনিস, মাথার চুল ইত্যাদি।গানের কথায় এসব আর অদ্ভুত সুর তরুণরা ইন্টারনেটে পাওয়া মাত্রই লুফে নেয়।

About admin

Check Also

আনন্দের রেশ কাটতে না কাটতেই এবার মৌসুমীর ঘরে শোকের ছায়া

সপ্তাহ খানেক আগেই অর্থাৎ ২৬ তারিখ খুবই আনন্দের সাথে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় জুটিমৌসুমী ও ওমর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.