৮০ হাজার টাকার সোনার চেন খেয়ে ফেললো গরু!

মালিক বাড়িতে পোষা গরুর পূজা করেন এবং মালিক তার গলায় সোনার মালা ও ফুলের মালা পরিয়ে দেন। গরুটি ক্ষতি ভেবে খাবারটি গিলে ফেলে। অস্ত্রোপচারের পর পেট থেকে সোনার চেইন উদ্ধার করা হয়। ঘটনাটি ঘটেছে কর্ণাটকের উত্তর কন্নড় জেলার হেপানাহাল্লিতে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দীপাবলিতে বাড়িতে গো-পুজোর আয়োজন করেছিলেন শ্রীকান্ত হেগড়ে। পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে পোষা গরুটিকে ফুলের মালা ও ২০ গ্রাম ওজনের সোনার মালা পরিয়ে পূজা করেন।

পূজা শেষে গরুর পাশে ফুলের মালা ও সোনার মালা রেখে যান শ্রীকান্ত। সবাই যখন পূজায় ব্যস্ত, তখন গরু তার পাশে রাখা ফুলের মালাসহ সোনার মালা খায়।কিছুক্ষণ পর শ্রীকান্ত নেকলেসটি তুলতে গেলে গরুর পাশ থেকে অদৃশ্য হয়ে গেছে।

খবরটি দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে হেগড়ের বাড়িতে। সারা বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করেও যখন হার পাওয়া যায়নি, তখন গরু নিয়ে সবার সন্দেহ হয়। শ্রীকান্ত নিশ্চিত হন যে মালা দিয়ে রাখা সোনার হারটি তাদের পোষা প্রাণী খেয়ে ফেলেছে।

মালিক বাড়িতে পোষা গরুর পূজা করেন এবং মালিক তার গলায় সোনার মালা ও ফুলের মালা পরিয়ে দেন। গরুটি ক্ষতি ভেবে খাবারটি গিলে ফেলে। অস্ত্রোপচারের পর পেট থেকে সোনার চেইন উদ্ধার করা হয়। ঘটনাটি ঘটেছে কর্ণাটকের উত্তর কন্নড় জেলার হেপানাহাল্লিতে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দীপাবলিতে বাড়িতে গো-পুজোর আয়োজন করেছিলেন শ্রীকান্ত হেগড়ে। পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে পোষা গরুটিকে ফুলের মালা ও ২০ গ্রাম ওজনের সোনার মালা পরিয়ে পূজা করেন।

পূজা শেষে গরুর পাশে ফুলের মালা ও সোনার মালা রেখে যান শ্রীকান্ত। সবাই যখন পূজায় ব্যস্ত, তখন গরু তার পাশে রাখা ফুলের মালাসহ সোনার মালা খায়।কিছুক্ষণ পর শ্রীকান্ত নেকলেসটি তুলতে গেলে গরুর পাশ থেকে অদৃশ্য হয়ে গেছে।

খবরটি দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে হেগড়ের বাড়িতে। সারা বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করেও যখন হার পাওয়া যায়নি, তখন গরু নিয়ে সবার সন্দেহ হয়। শ্রীকান্ত নিশ্চিত হন যে মালা দিয়ে রাখা সোনার হারটি তাদের পোষা প্রাণী খেয়ে ফেলেছে।

মালিক বাড়িতে পোষা গরুর পূজা করেন এবং মালিক তার গলায় সোনার মালা ও ফুলের মালা পরিয়ে দেন। গরুটি ক্ষতি ভেবে খাবারটি গিলে ফেলে। অস্ত্রোপচারের পর পেট থেকে সোনার চেইন উদ্ধার করা হয়। ঘটনাটি ঘটেছে কর্ণাটকের উত্তর কন্নড় জেলার হেপানাহাল্লিতে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দীপাবলিতে বাড়িতে গো-পুজোর আয়োজন করেছিলেন শ্রীকান্ত হেগড়ে। পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে পোষা গরুটিকে ফুলের মালা ও ২০ গ্রাম ওজনের সোনার মালা পরিয়ে পূজা করেন।

পূজা শেষে গরুর পাশে ফুলের মালা ও সোনার মালা রেখে যান শ্রীকান্ত। সবাই যখন পূজায় ব্যস্ত, তখন গরু তার পাশে রাখা ফুলের মালাসহ সোনার মালা খায়।কিছুক্ষণ পর শ্রীকান্ত নেকলেসটি তুলতে গেলে গরুর পাশ থেকে অদৃশ্য হয়ে গেছে।

খবরটি দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে হেগড়ের বাড়িতে। সারা বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করেও যখন হার পাওয়া যায়নি, তখন গরু নিয়ে সবার সন্দেহ হয়। শ্রীকান্ত নিশ্চিত হন যে মালা দিয়ে রাখা সোনার হারটি তাদের পোষা প্রাণী খেয়ে ফেলেছে।

About admin

Check Also

হাজারো মানুষের ঢল সাগরে এত বড়সড় মাছ ধরা পড়াতে, রাতারাতি ভাইরাল।

দেশ-বিদেশে কি সমস্ত ঘটছে সেগু’লো টুইটার এবং ইউটিউবসহ বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মে তুমুল ভাইরাল হয়। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *