আমি জীবিত থাকতে শামীম ওসমানকে নৌকা পেতে দেব না: নানক

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমানকে ইঙ্গিত করে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানকবলেছেন, ‘শেখ হাসিনা নৌকা প্রতীক দিয়েছিলেন বলে এমপি হয়েছেন। আর সেই শেখ হাসিনার প্রার্থীর বিরোধিতা করছেন। জীবিত থাকতে আগামীতে নৌকা পেতে দেব না।’ শুক্রবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৩ নম্বর ওয়ার্ডে বন্দরের কবিলের মোড় এলাকায়

নির্বাচনী কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাহাঙ্গীর কবির নানক এ কথা বলেন। কর্মী সমাবেশ বলা হলেও এটি ছিল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর নির্বাচনী প্রচারাভিযানের একটি অংশ। নির্বাচন কার্যক্রম চলাকালীন এমপিদের প্রচার অভিযান নিষেধ হলেও এই কর্মিসভায় দু’জন এমপি উপস্থিত ছিলেন।

নানক বলেন, ‘কেউ কোনো ষড়যন্ত্র করে রেহাই পাবেন না। জাতীয় পার্টির বন্ধুদের এই নারায়ণগঞ্জে ভিন্ন চরিত্র, ভিন্ন চেহারা।’ তিনি বলেন, ‘আগামী ১৬ জানুয়ারি আপনারা নির্ধারণ করবেন আপনাদের ভাগ্য। পবিত্র আমানত আপনাদের হাতে। এই ভোটের আমানতেই আগামী পাঁচ বছর কেমন যাবে, তা নির্ধারণ হবে। শেখ হাসিনা আপনাদের সালাম ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, মেয়র আইভী উন্নয়ন করেছে, আমার আইভীকে নির্বাচিত করলে এই উন্নয়ন অব্যাহত থাকবে। উন্নয়নে আরও গতি সঞ্চার হবে।’ তিনি বলেন,‘নির্বাচন এলে এই নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন ধরনের কথাবার্তা আসে। আজকের বিশাল জনসভা প্রমাণ করেছে, কোনো হুমকি-ধমকি, কোনো মিথ্যাচারের কাছে এই বন্দরের মানুষেরা হার মানবে না।

পরাজিত হবে না। বিজয়ী হবেই হবে।’ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ রশীদের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, এস এম কামাল হোসেন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই প্রমুখ।

সেখানে আরও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ নজরুল ইসলাম বাবু, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন,

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান, মহানগরেরজিএম আরাফাত, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দুসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা।

তিনি বলেছেন, মেয়র আইভী উন্নয়ন করেছে, আমার আইভীকে নির্বাচিত করলে এই উন্নয়ন অব্যাহত থাকবে। উন্নয়নে আরও গতি সঞ্চার হবে।’ তিনি বলেন,‘নির্বাচন এলে এই নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন ধরনের কথাবার্তা আসে। আজকের বিশাল জনসভা প্রমাণ করেছে, কোনো হুমকি-ধমকি, কোনো মিথ্যাচারের কাছে এই বন্দরের মানুষেরা হার মানবে না।

পরাজিত হবে না। বিজয়ী হবেই হবে।’ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ রশীদের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, এস এম কামাল হোসেন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই প্রমুখ।

সেখানে আরও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ নজরুল ইসলাম বাবু, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন,

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান, মহানগরেরজিএম আরাফাত, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দুসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা।

About admin

Check Also

আওয়ামী লীগের ধানমন্ডি কার্যালয়ে মহিউদ্দিন রনি

বাংলাদেশ রেলওয়ের অব্যবস্থাপনা পরিবর্তনে ৬ দফা দাবি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনায় আওয়ামী লীগের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.