অপু বিশ্বাস যেভাবে সিনেমার নায়িকা হলেন

অপু বিশ্বাস; এক নামেই দেশজুড়ে পরি’চিত। ভক্তদের কাছে তিনি ঢালিউড কুইন। গত দেড় দশকে তার ম’তো জনপ্রিয়তা দেশের কোনো নায়িকা পাননি। শতাধিক সিনেমায় কাজ করে’ছেন অপু। যার মধ্যে সিংহভাগই সফল। নায়িকা হিসেবে জন:প্রিয়তার আকাশ ছোঁয়া অপু বিশ্বাসের পথচলা শুরু হয়েছিল কীভাবে? চলু’ন সেই পেছনের অজানা গল্পটা জেনে নেওয়া যাক…

অপু বিশ্বাসের জন্ম ও বেড়ে ওঠা বগু’ড়ায়। চার ভাই-বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট। তাই আদুরে ছিলেন। নানা আ’বদার-বায়না মিটিয়ে নিতেন সহজেই। ইন্টারনেটে বিভিন্ন সাইটে অ’পুর আসল নাম হিসেবে রয়েছে অবন্তী বিশ্বাস।

তথ্যটি সঠিক নয়। তার আ’সল নাম অপু বিশ্বাসই। এই নাম রেখেছিলেন তার দাদু। অন্যদিকে অব’ন্তী নামটি মূলত নির্মাতা সুভাষ দত্ত দিয়েছিলেন। এবং তিনিই আ’দর করে ওই নামে ডাকতেন।

তৃতীয় শ্রেণিতে থাকা অবস্থায় নাচ শেখা শু’রু করেন অপু বিশ্বাস। স্কুলের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানগুলোর মধ্য’মণি ছিলেন তিনি। তখন ক্লাস নাইনে পড়েন অপু। কয়েকজন বান্ধবী জা’নাল, ঢাকায় লাক্স ফটোসুন্দরী নামে একটি প্রতিযোগিতা হ’চ্ছে। সেখানে ছবি পাঠানোর জন্য বান্ধবীদের সঙ্গে গিয়ে ছবি তুল’লেন অপু।

পত্রিকায় পাওয়া ঠিকানা অনুসারে সেটা পাঠি’য়েও দেন। কয়েক দিন পরই অপুর কাছে চিঠি আসে। তাকে সেরা ২৫ জনে’র মধ্যে সিলেক্ট করা হয়েছে। প্রথমে খবরটি শুনে অপুর মা কি’ছুটা রেগে যান। পরে মেয়ের আগ্রহ দেখে মেনে নেন। এক প’র্যায়ে অপু জায়গা পেয়ে যান সেরা দশে। কিন্তু হঠাৎ তার মা অসুস্থ হয়ে যা’ওয়ার কারণে আর অংশ নিতে পারেননি। অপু বিশ্বাস যখন ক্লাস টে’নে উঠলেন,

তখন দূর সম্পর্কের এক মামা তাকে সিনে’মায় অভিনয়ের প্রস্তাব দেন। তিনি জানান, আমজাদ হোসেন একটি সি’নেমা বানাচ্ছেন ‘কাল সকালে’ নামে। সেখানে নায়িকার বান্ধবীর চরি’ত্রের জন্য ওই মামার পরামর্শে যুক্ত হন অপু। সিনেমাটিতে নায়ক-নায়ি’কার ভূমিকায় ছিলেন ফেরদৌস ও শাবনূর। ওই সিনেমার কাজ সেরে অ’পু বিশ্বাস ফিরে যান বগুড়াতে। প্রস্তুতি নেন এসএসসি প’রীক্ষার।

ওই পরীক্ষার মাঝেই তার কাছে ফোন করে’ন নির্মাতা এফ আই মানিক। জানালেন, ‘কোটি টাকার কাবিন’ সি’নেমায় তাকে নায়িকা করতে চান। তিনি উচ্ছ্বসিত হন প্রস্তাবটি পেয়ে। পরি’বারকে মানিয়ে তিনি চলে আসেন ঢাকায়। অভিনয় করেন সিনেমা’টিতে। আর ২০০৬ সালে প্রায় সাড়ে ৩০০ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পর দেশজু’ড়ে তুমুল জনপ্রিয়তা লাভ করে। এরপরের গল্পটা কম-বেশি সবারই জা’না।

সুপারহিট সব সিনেমার মাধ্যমে ঢালিউডের শীর্ষ নায়ি’কা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হন অপু বিশ্বাস। তার অভিনীত উল্লেখ’যোগ্য কয়েকটি সিনেমা হলো- ‘চাচ্চু’, ‘দাদীমা’, ‘পিতার আসন’, ‘কাবিন’নামা’, ‘আমার জান আমার প্রাণ’, ‘মনে প্রাণে আছো তুমি’, ‘ভালো’বাসলেই ঘর বাঁধা যায় না’, ‘নিঃশ্বাস আমার তুমি’ ইত্যাদি। ব্যক্তি’গত জীবনে অপু বিশ্বাস বিয়ে করেছেন সুপারস্টার শাকিব খানকে।

২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল বিয়ে করেন তারা। তবে ক্যারিয়া’রের কথা ভেবে দু’জনেই বিষয়টি গোপন রাখেন। ২০১৭ সা’লে বিয়ের কথা প্রকাশ্যে আনেন অপু। সেই সঙ্গে জানা’ন, তিনি একটি সন্তানের মা হয়েছেন। সেই সন্তানের নাম আব্রা’হাম খান জয়। ওই বছরের ২২ নভেম্বর তালাকের আবেদন করেন শা’কিব। ২০১৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি এ দম্পতির বিবাহ’বিচ্ছেদ কার্যকর হয়।

About admin

Check Also

পাঁচ বোনের সঙ্গে হাজির চঞ্চল চৌধুরী

ভাইয়ের কপালে দিয়ে ফোঁটা, যম দুয়ারে পড়ল কাঁটা। হিন্দু ধর্মে ভাইয়ের সুস্থতা কামনায় প্রত্যেক বোনই …

Leave a Reply

Your email address will not be published.