একা পেয়ে নৌকার মধ্যে তরুণ-তরুণী অশ্লীল কাজের ভিডিও ভাইরাল, (ভিডিও)

তরুণ-তরুণীরা নৌকা ভ্রমণ করতে অনেক পছন্দ করি, নৌকা ভ্রমন অনেক ইনজয় হল প্রাকৃতিক সৌন্দর্য মধ্যকার পরিবেশ গড়ে ওঠে নৌকা ভ্রমনে। নৌকা ভ্রমন কতটা মজাদার শুধু তারাই বুঝবে যারা নৌকাভ্রমণ করছে।

তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায় কিছু কনটেন্ট ক্রিয়েটর আছে যারা নৌকা ভ্রমনের নামে ভিডিও শুটিং করে।সেই ভিডিও গুলো যখন এইচডি ফটো ফেসবুকে দেয় তা মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়।

এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে ওই ভিডিওতে দেখা যায় নৌকার মধ্যে এক যুবক যুবতীর ভঙ্গিমায় ডান্স করছে, তাদের ভিডিও টি যখন ফেসবুকে আপলোড দেয়া হয় তা ভাইরাল হয়ে যায়, ভিডিওটি দেখুন..

আরোও পড়ুন..’প্রতিদিন মুড়ি খেলে যেসব উপকার মেলে’, সকালে কিংবা বিকালে, চায়ের সঙ্গে অনেকেই মুড়ি খান। অনেকে আবার যখন তখন মুখে তুলে মুঠো ভর্তি মুড়ি

পুষ্টি বিজ্ঞানীরা বলছেন রোজ মুড়ি খাওয়ার অভ্যাস স্বাস্থ্যকর বটে! মুড়ি খেলে ইউরিক অ্যাসিডের পরিমাণ বাড়তে পারে। তাই অনেকেই মুড়ি এড়িয়ে চলেন। তবে মুড়ির গুণও নেহাত কম নয়।

রোজ মুড়ি খেলে ক্ষতির চেয়ে লাভের সম্ভাবনাই বেশি।অ্যাসিডিটির সমস্যা কমাতে পারে মুড়ি। নিয়মিত মুড়ি খেলে পেটে অ্যাসিডের ক্ষরণে ভারসাম্য আসে।বাড়াবাড়ি রকমের অ্যাসিড হলে, মুড়ি পানিতে ভিজিয়ে খান অনেকে। তাতে দ্রুত অ্যাসিডের সমস্যা কমে।

• মুড়িতে ক্যালসিয়াম আর আয়রন থাকে। এটি হাড় শক্ত করে। এছাড়াও মুড়ির উপকারিতা অনেক রয়েছে। যেগুলো ছোটখাটো বিষয়ে আসলে খুব অল্প পরিমাণে চোখে পরে।

• মুড়িতে ক্যালোরির মাত্রা অত্যন্ত কম। অল্প ক্ষুধা পেলে মুড়ি খেলে পেট ভরে যায়। ক্যালোরির মাত্রা কম বলে মুড়ি খেলে ওজন বাড়ে না। যারা হাল্কা খাবার হিসাবে নিয়মিত মুড়ি খান, তাদের পক্ষে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ।

• আপনি কি রোজ মুড়ি খান? তা হলে নিয়ন্ত্রণে থাকতে পারে আপনার রক্তচাপও। এতে সোডিয়ামের মাত্রা কম। ফলে এটি খাওয়ার পরে পেট ভরলেও রক্তচাপ বাড়ে না।

পুষ্টি বিজ্ঞানীরা বলছেন রোজ মুড়ি খাওয়ার অভ্যাস স্বাস্থ্যকর বটে! মুড়ি খেলে ইউরিক অ্যাসিডের পরিমাণ বাড়তে পারে। তাই অনেকেই মুড়ি এড়িয়ে চলেন। তবে মুড়ির গুণও নেহাত কম নয়।

রোজ মুড়ি খেলে ক্ষতির চেয়ে লাভের সম্ভাবনাই বেশি।অ্যাসিডিটির সমস্যা কমাতে পারে মুড়ি। নিয়মিত মুড়ি খেলে পেটে অ্যাসিডের ক্ষরণে ভারসাম্য আসে।বাড়াবাড়ি রকমের অ্যাসিড হলে, মুড়ি পানিতে ভিজিয়ে খান অনেকে। তাতে দ্রুত অ্যাসিডের সমস্যা কমে।

• মুড়িতে ক্যালসিয়াম আর আয়রন থাকে। এটি হাড় শক্ত করে। এছাড়াও মুড়ির উপকারিতা অনেক রয়েছে। যেগুলো ছোটখাটো বিষয়ে আসলে খুব অল্প পরিমাণে চোখে পরে।

• মুড়িতে ক্যালোরির মাত্রা অত্যন্ত কম। অল্প ক্ষুধা পেলে মুড়ি খেলে পেট ভরে যায়। ক্যালোরির মাত্রা কম বলে মুড়ি খেলে ওজন বাড়ে না। যারা হাল্কা খাবার হিসাবে নিয়মিত মুড়ি খান, তাদের পক্ষে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ।

• আপনি কি রোজ মুড়ি খান? তা হলে নিয়ন্ত্রণে থাকতে পারে আপনার রক্তচাপও। এতে সোডিয়ামের মাত্রা কম। ফলে এটি খাওয়ার পরে পেট ভরলেও রক্তচাপ বাড়ে না।

About admin

Check Also

স্বামীকে ২৪ ঘন্টায় ২৭ বার ছেড়ে দেন মাহিয়া মাহি

যারা চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিকে ফেসবুকে অনুসরণ করেন তারা জানেন প্রেমময় স্ট্যাটাসে জুড়ি নেই তার। প্রায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.