নারীদের চুমু দিয়ে রোগ সারান চুমু বাবা! (ভিডিও)

রমরমা ব্যবসা ফেঁদে বসেছিলেন ভার’তের আসা”ম রাজ্যের স্বঘোষিত চুমু বাবা। নাম তার রামপ্রকাশ চৌহান। সং’সারে স্বামী’কে নিয়ে অশান্তি! দীর্ঘদিন ধরে স’ন্তান হচ্ছে না! পরকী’য়ায় আসক্ত হয়েছেন স্বামী? স্বামীকে বশ করা যা’চ্ছে না? কোনো চি’ন্তা নেই। সোজা চলে আসুন ‘চুমু বাবা’র কাছে! এক চুমুতে’ই কি’স্তিমাত!

এ ধরনের প্রচারণা চালিয়ে তি’নি নারীদে’র ঠকিয়ে আসছিলেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না তার। অবশেষে ধ’রা পড়’লেন পুলিশের জালে। চুমু বাবার কাছে প্রতারণার শিকা’র লোক’জন জানায়, সংসারের যাবতীয় সমস্যা সমাধানের এই চু’মুর নাম হ’চ্ছে ‘চমৎকারী চুমু’। বলা হতো, এই চুমুর এমনই গুণ যে এক’বার

চুমু বাবার কাছে গিয়ে চমৎকারী চু’মু খেলেই স’ব সমস্যা নিমেষেই দূর হয়ে যাবে। তবে শর্ত একটাই চু’মু বা’বার কাছে আসতে হবে শুধু নারীদের। ভারতের আসাম রাজ্যে’র মরি’গাঁও জেলার ভোরালটুপ গ্রামের বাসিন্দা রামপ্রকাশ চৌহা’ন। বয়’স ত্রিশের কোঠায়। স্বঘোষিত এই অলৌকিক ক্ষমতাধর চুমু বা’বা তাঁর আখ’ড়ায় সমস্যা নিয়ে যাওয়া নারীদের জড়িয়ে ধরে চুমু দিতে’ন,

আর তাতেই নাকি সব সমস্যার সমা’ধান হয়ে যে’ত। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের কাছ থেকে বিষয়টি জান’তে পারে আ’সাম পুলিশ। তারপরই অভিযান চালিয়ে হাতেনাতে চুমু বা’বা ও তা’র মাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এই চুমুর মাহাত্ম্য ধীরে ধীরে ছড়ি’য়ে পড়’তে থাকে গ্রামের পর গ্রাম। প্রতিদিন দলে দলে নারী’রা আসতে থাকে না’না সমস্যা নিয়ে চুমু বাবার ডেরায়। চুমুর মাধ্যমে নারী’দের সারিয়ে তুল’তে আসামের

মৌরিগাঁও অঞ্চলে একটি মন্দির গড়ে তুলেছি’লেন রা’ম প্রকাশ। একমাস আগে শুরু করা তার এই ক’থিত ‘পন্থা’ আসাম জুড়ে নারীদের মাঝেও সাড়া ফেলে বে’শ। শত শ’ত বছর ধরে মৌরিগাঁও অঞ্চলে কালো জাদু নামক কুসংস্কারের প্র’ভাব থাকা’য় রাম প্রকাশের ভণ্ডামি প্রসার পেয়েছে বেশ। আধুনি’ক শিক্ষার প্র’সার এ অঞ্চলে একদম নেই বললেই চলে। আর সন্তা’নের প্র’সারে রাম প্রকাশের

তার মায়ের অবদান ছিল খানিকটা। মৌরি’গাঁও অঞ্চ’লের মানুষদের বিশ্বাস স্বয়ং ‘বিষ্ণু’র কৃপা আছে তাদে’র উপ’র। আর সেই প্রভাব কাজে লাগিয়েই সাপের ও’ঝা থেকে শুরু ক’রে তান্ত্রিক গুরু নামক মানুষ ঠকানো বিভিন্ন পন্থা গড়ে উঠে’ছে এই অ’ঞ্চলে।

পুলিশ জানিয়েছে, রামপ্রকাশ চৌহানের বিরু’দ্ধে অভি_যোগ, সমস্যা দূর করে দেয়ার নামে নারীদের জড়িয়ে ধরে চু_মু খাও’য়ার মাধ্যমে যৌন লালসা পূরণ করতেন তি’নি।

এই চুমুর মাহাত্ম্য ধীরে ধীরে ছড়ি’য়ে পড়’তে থাকে গ্রামের পর গ্রাম। প্রতিদিন দলে দলে নারী’রা আসতে থাকে না’না সমস্যা নিয়ে চুমু বাবার ডেরায়। চুমুর মাধ্যমে নারী’দের সারিয়ে তুল’তে আসামের

মৌরিগাঁও অঞ্চলে একটি মন্দির গড়ে তুলেছি’লেন রা’ম প্রকাশ। একমাস আগে শুরু করা তার এই ক’থিত ‘পন্থা’ আসাম জুড়ে নারীদের মাঝেও সাড়া ফেলে বে’শ। শত শ’ত বছর ধরে মৌরিগাঁও অঞ্চলে কালো জাদু নামক কুসংস্কারের প্র’ভাব থাকা’য় রাম প্রকাশের ভণ্ডামি প্রসার পেয়েছে বেশ। আধুনি’ক শিক্ষার প্র’সার এ অঞ্চলে একদম নেই বললেই চলে। আর সন্তা’নের প্র’সারে রাম প্রকাশের

তার মায়ের অবদান ছিল খানিকটা। মৌরি’গাঁও অঞ্চ’লের মানুষদের বিশ্বাস স্বয়ং ‘বিষ্ণু’র কৃপা আছে তাদে’র উপ’র। আর সেই প্রভাব কাজে লাগিয়েই সাপের ও’ঝা থেকে শুরু ক’রে তান্ত্রিক গুরু নামক মানুষ ঠকানো বিভিন্ন পন্থা গড়ে উঠে’ছে এই অ’ঞ্চলে।

পুলিশ জানিয়েছে, রামপ্রকাশ চৌহানের বিরু’দ্ধে অভি_যোগ, সমস্যা দূর করে দেয়ার নামে নারীদের জড়িয়ে ধরে চু_মু খাও’য়ার মাধ্যমে যৌন লালসা পূরণ করতেন তি’নি।

About admin

Check Also

গণকমিশনের অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ১১৬ জনকে ধর্ম ব্যবসায়ী আখ্যা দিয়ে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির …

Leave a Reply

Your email address will not be published.