গোপনে বিয়ে, শ্বশুর বাড়িতে এসে নির্যাতনের শিকার হলেন নতুন জামাই

ঠাকুরগাঁওয়ে শ্বশুর বাড়িতে স্ত্রীকে দেখতে গিয়ে নি’র্যাতনের শি’কার হয়েছেন জামাতা নাসিরুল ইসলাম। এমন একটি ভিডিও ভা’ইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নির্যাতনের ভিডিও সা’মাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করা হলে খুব দ্রুত সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। সেই ভিডিও দেখে অনেকেই তা শেয়ার করে দো’ষীদের আ’ইনের আওতায় আনার দাবি করেন।

এ ঘটনায় শাশুড়ি সেলিনা বেগমকে গ্রে’ফতার করেছে পুলিশ। গত সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাণীশংকৈল উ’পজেলার ভাঙ্গাবাড়ি গ্রামে এ নি’র্যাতনের ঘটনাটি ঘটে।ভু’ক্তভোগী নাসিরুল ইসরাম রাণীশংকৈল উপজেলার ভা’ঙ্গাবাড়ি গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে।রাণীশংকৈল থা’নার ওসি এস এম জাহিদ ইকবাল ঘটনার স’ত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ওসি জানান, ভাঙ্গাবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা করিমুলের মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে নাসিরুলের। দীর্ঘদিন সম্পর্ক থাকার পর, গত ৯ সেপ্টেম্বর তারা দু’জনে কোর্টে গো’পনে বিয়ে করে না’রায়নগঞ্জে অবস্থান করতে থাকেন।

এদিকে বিয়ের ঘ’টনাটি মেয়ের পরিবার মেনে না নিয়ে উল্টো ছেলের পরিবারকে দো’ষারোপ করে।একপর্যায়ে মেয়ের প’রিবার তাদের মেয়েকে ফেরত দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে এবং বিয়ে মেনে নেয়ার প্র’তিশ্রুতি দেয়

পরবর্তীতে দুই পরিবারের অভিভাবকরা একত্রিত হয়ে নাসিরুল ও তার স্ত্রী’কে নারায়নগঞ্জ থে’কে ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে নিয়ে আসেন। মেয়ের পরিবারের পক্ষ থেকে আ’নুষ্ঠানিক ভাবে বিয়ে দেয়ার প্র’তিশ্রুতি দেয়া হলে না’সিরুল তার নিজ বাসায় ও মেয়ে তার বাবার বাসায় অবস্থান করতে থাকে।

পরবর্তীতে গত ২০ সেপ্টেম্বর বিকেলে স্ত্রীর সাথে দেখা করতে গেলে শ্বশুর-শাশুড়িসহ ওই পরিবারের লোকজন নাসিরুলকে গাছে বেঁধে নি’র্যাতন করে। লাঠি দিয়ে পে’টানোর কারণে একপর্যায়ে জ্ঞা’ন হারায় নাসিরুল।

এসময় তাদের প্রতিবেশী ৯৯৯ নাম্বারে কল দিলে পু’লিশ ঘটনাস্থল থেকে নাসিরুলকে উদ্ধার করে রাণীশংকৈল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়।
এরপর বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) নাসিরুলের শা’রীরিক অবস্থার অ’বনতি হলে ক’র্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেলে পাঠান।

ওসি আরও জানান, নাসিরুলের বাবা খলিলুর রহমান মৌখিক অ’ভিযোগ করেছেন। পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। মা’মলা দা’য়ের হলে ঘটনার সাথে জড়িত সকলকে আইনের আওতায় আনা হবে।

এদিকে বিয়ের ঘ’টনাটি মেয়ের পরিবার মেনে না নিয়ে উল্টো ছেলের পরিবারকে দো’ষারোপ করে।একপর্যায়ে মেয়ের প’রিবার তাদের মেয়েকে ফেরত দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে এবং বিয়ে মেনে নেয়ার প্র’তিশ্রুতি দেয়

পরবর্তীতে দুই পরিবারের অভিভাবকরা একত্রিত হয়ে নাসিরুল ও তার স্ত্রী’কে নারায়নগঞ্জ থে’কে ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে নিয়ে আসেন। মেয়ের পরিবারের পক্ষ থেকে আ’নুষ্ঠানিক ভাবে বিয়ে দেয়ার প্র’তিশ্রুতি দেয়া হলে না’সিরুল তার নিজ বাসায় ও মেয়ে তার বাবার বাসায় অবস্থান করতে থাকে।

পরবর্তীতে গত ২০ সেপ্টেম্বর বিকেলে স্ত্রীর সাথে দেখা করতে গেলে শ্বশুর-শাশুড়িসহ ওই পরিবারের লোকজন নাসিরুলকে গাছে বেঁধে নি’র্যাতন করে। লাঠি দিয়ে পে’টানোর কারণে একপর্যায়ে জ্ঞা’ন হারায় নাসিরুল।

এসময় তাদের প্রতিবেশী ৯৯৯ নাম্বারে কল দিলে পু’লিশ ঘটনাস্থল থেকে নাসিরুলকে উদ্ধার করে রাণীশংকৈল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়।
এরপর বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) নাসিরুলের শা’রীরিক অবস্থার অ’বনতি হলে ক’র্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেলে পাঠান।

ওসি আরও জানান, নাসিরুলের বাবা খলিলুর রহমান মৌখিক অ’ভিযোগ করেছেন। পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। মা’মলা দা’য়ের হলে ঘটনার সাথে জড়িত সকলকে আইনের আওতায় আনা হবে।

About admin

Check Also

স্বামীকে ২৪ ঘন্টায় ২৭ বার ছেড়ে দেন মাহিয়া মাহি

যারা চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিকে ফেসবুকে অনুসরণ করেন তারা জানেন প্রেমময় স্ট্যাটাসে জুড়ি নেই তার। প্রায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.