ছি: ছি: কি লজ্জার ব্যাপার: লিটন দাসের স্ত্রী

সুপার টুয়েলভে দুটি ক্যাচ মিস করে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছিল ক্রিকটোর লিটন দাস। শুধু কি তাই, বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যনে লিটন দাসকে নিয়ে নানারকম ট্রল করা হচ্ছে।

এদিকে গতকাল দেশের কয়েকটি ই-কমার্সের ফেসবুক পেজ লিটনের রান সংখ্যার ওপরে ডিসকাউন্ট ঘোষণা দেয় তারা। এই ঘটনা ভালোভাবে গ্রহণ করতে পারেননি লিটন দাসের স্ত্রী সঞ্চিতা। নিজের সোশ্যাল সাইট অ্যাকাউন্টে তিনি এর প্রতিবাদ জানান।

সঞ্চিতা লিখেছেন, “ব্যাপারটা হলো, প্রতিবার কেউ ক্যাচ মিস করলে বা খারাপ স্কোর করলে সেট আসল সমস্যা নয়। কখনও কখনও সমস্যা শুধুমাত্র নির্দিষ্ট ব্যক্তি বা তার নামের সঙ্গে হয়! মানুষের উপহাস বা মিম তৈরি করা দেখে আমাদের খারাপ লাগে না। কারণ আমরা ইতিমধ্যেই এটিতে অভ্যস্ত।

কিন্তু যখন আমি দেখি যে, কিছু ব্যবসায়িক পেজ যারা তার (লিটন দাস) নাম ব্যবহার করে বা পরোক্ষভাবে তার খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য প্রার্থনা করে তাদের ব্যবসা চালানোর চেষ্টা করছে; তখন আমি ভাষা হারিয়ে ফেলি!

একবার ভাবুন, মানুষ এত শয়তান এবং নিচু মানসিকতার কীভাবে হয়! আপনি প্রার্থনা করছেন একজন খেলোয়াড় যেন আপনার ব্যবসায়িক কৌশলের জন্য ম্যাচে খারাপ স্কোর করুক! ছি: ছি: কি লজ্জার ব্যাপার!”

সুপার টুয়েলভে দুটি ক্যাচ মিস করে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছিল ক্রিকটোর লিটন দাস। শুধু কি তাই, বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যনে লিটন দাসকে নিয়ে নানারকম ট্রল করা হচ্ছে।

এদিকে গতকাল দেশের কয়েকটি ই-কমার্সের ফেসবুক পেজ লিটনের রান সংখ্যার ওপরে ডিসকাউন্ট ঘোষণা দেয় তারা। এই ঘটনা ভালোভাবে গ্রহণ করতে পারেননি লিটন দাসের স্ত্রী সঞ্চিতা। নিজের সোশ্যাল সাইট অ্যাকাউন্টে তিনি এর প্রতিবাদ জানান।

সঞ্চিতা লিখেছেন, “ব্যাপারটা হলো, প্রতিবার কেউ ক্যাচ মিস করলে বা খারাপ স্কোর করলে সেট আসল সমস্যা নয়। কখনও কখনও সমস্যা শুধুমাত্র নির্দিষ্ট ব্যক্তি বা তার নামের সঙ্গে হয়! মানুষের উপহাস বা মিম তৈরি করা দেখে আমাদের খারাপ লাগে না। কারণ আমরা ইতিমধ্যেই এটিতে অভ্যস্ত।

কিন্তু যখন আমি দেখি যে, কিছু ব্যবসায়িক পেজ যারা তার (লিটন দাস) নাম ব্যবহার করে বা পরোক্ষভাবে তার খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য প্রার্থনা করে তাদের ব্যবসা চালানোর চেষ্টা করছে; তখন আমি ভাষা হারিয়ে ফেলি!

একবার ভাবুন, মানুষ এত শয়তান এবং নিচু মানসিকতার কীভাবে হয়! আপনি প্রার্থনা করছেন একজন খেলোয়াড় যেন আপনার ব্যবসায়িক কৌশলের জন্য ম্যাচে খারাপ স্কোর করুক! ছি: ছি: কি লজ্জার ব্যাপার!”

সুপার টুয়েলভে দুটি ক্যাচ মিস করে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছিল ক্রিকটোর লিটন দাস। শুধু কি তাই, বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যনে লিটন দাসকে নিয়ে নানারকম ট্রল করা হচ্ছে।

এদিকে গতকাল দেশের কয়েকটি ই-কমার্সের ফেসবুক পেজ লিটনের রান সংখ্যার ওপরে ডিসকাউন্ট ঘোষণা দেয় তারা। এই ঘটনা ভালোভাবে গ্রহণ করতে পারেননি লিটন দাসের স্ত্রী সঞ্চিতা। নিজের সোশ্যাল সাইট অ্যাকাউন্টে তিনি এর প্রতিবাদ জানান।

সঞ্চিতা লিখেছেন, “ব্যাপারটা হলো, প্রতিবার কেউ ক্যাচ মিস করলে বা খারাপ স্কোর করলে সেট আসল সমস্যা নয়। কখনও কখনও সমস্যা শুধুমাত্র নির্দিষ্ট ব্যক্তি বা তার নামের সঙ্গে হয়! মানুষের উপহাস বা মিম তৈরি করা দেখে আমাদের খারাপ লাগে না। কারণ আমরা ইতিমধ্যেই এটিতে অভ্যস্ত।

কিন্তু যখন আমি দেখি যে, কিছু ব্যবসায়িক পেজ যারা তার (লিটন দাস) নাম ব্যবহার করে বা পরোক্ষভাবে তার খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য প্রার্থনা করে তাদের ব্যবসা চালানোর চেষ্টা করছে; তখন আমি ভাষা হারিয়ে ফেলি!

একবার ভাবুন, মানুষ এত শয়তান এবং নিচু মানসিকতার কীভাবে হয়! আপনি প্রার্থনা করছেন একজন খেলোয়াড় যেন আপনার ব্যবসায়িক কৌশলের জন্য ম্যাচে খারাপ স্কোর করুক! ছি: ছি: কি লজ্জার ব্যাপার!”

About admin

Check Also

৬টি দল নিয়ে মিরপুরে হতে যাচ্ছে বিশ্বের সব থেকে জনপ্রিয় ক্রিকেট লিগ

২০১৭ সাল থেকে শুরু হওয়া ক্রিকেটের সবচেয়ে সংক্ষিপ্ত সংস্করণ টি-টেন লিগ বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *