বি’দেশিদের গো’লামি করার চেয়ে মা’রা যাওয়া ভালো: ইমরান খান

এবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, বিদেশীদের দাসত্ব করার থেকে মৃত্যু ভালো। গতকাল সোমবার পাকিস্তানের সাধারণ মানুষের সঙ্গে এক প্রশ্ন-উত্তর অনুষ্ঠানে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এই অনুষ্ঠানে বিদেশী ঋণ প্রসঙ্গে তিনি এই মন্তব্য করেন।

এ সময় ইমরান খান বলেন, আমি জাতিকে সব সময় বলতে চেয়েছি, শুধুমাত্র ঋণের কারণে কোনো দেশের গোলামি করা যাবে না। ঋণ নেওয়ার থেকে বরং মৃত্যু ভালো।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, যখন বিদেশি দেশের প্রেসিডেন্টের কাছে বসে পাকিস্তানের কোনো নেতা পড়ার জন্য কাগজ ধরিয়ে দেয়, ২০ কোটি ২০ লাখ জনসংখ্যার দেশের জন্য সেটা অপমানের।

এই অনুষ্ঠানে সিন্ধু প্রদেশের রাজধানী করাচির এক ব্যক্তি ইমরান খানকে বলেন, সরকারের কোনো উদ্যোগই তাদের শহরের বাসিন্দাদের স্বাস্থ্য এবং আর্থিক সংকট মোকেবেলায় কোনো প্রভাব ফেলেনি।

এর জবাবে ইমরান খান বলেন, ওই এলাকা ১৮তম সংশোধনীর মাধ্যমে পাকিস্তানের প্রধান দুই বিরোধীদল দখল করেছে। তবে আগামী নির্বাচনে সিন্ধুতে তার দল জয় লাভ করবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এর আগে গত রবিবার প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আনা বিরোধীদের অনাস্থা প্রস্তাব ‘অসাংবিধানিক’ বলে খারিজ করে দেন পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদের ডেপুটি স্পিকার কাসিম খান সুরি। এরপর ইমরান খানের পরামর্শ মেনে পার্লামেন্ট ভেঙে দেন প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। অন্যদিকে ডেপুটি স্পিকারের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে যান বিরোধীরা।

এবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, বিদেশীদের দাসত্ব করার থেকে মৃত্যু ভালো। গতকাল সোমবার পাকিস্তানের সাধারণ মানুষের সঙ্গে এক প্রশ্ন-উত্তর অনুষ্ঠানে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এই অনুষ্ঠানে বিদেশী ঋণ প্রসঙ্গে তিনি এই মন্তব্য করেন।

এ সময় ইমরান খান বলেন, আমি জাতিকে সব সময় বলতে চেয়েছি, শুধুমাত্র ঋণের কারণে কোনো দেশের গোলামি করা যাবে না। ঋণ নেওয়ার থেকে বরং মৃত্যু ভালো।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, যখন বিদেশি দেশের প্রেসিডেন্টের কাছে বসে পাকিস্তানের কোনো নেতা পড়ার জন্য কাগজ ধরিয়ে দেয়, ২০ কোটি ২০ লাখ জনসংখ্যার দেশের জন্য সেটা অপমানের।

এই অনুষ্ঠানে সিন্ধু প্রদেশের রাজধানী করাচির এক ব্যক্তি ইমরান খানকে বলেন, সরকারের কোনো উদ্যোগই তাদের শহরের বাসিন্দাদের স্বাস্থ্য এবং আর্থিক সংকট মোকেবেলায় কোনো প্রভাব ফেলেনি।

এর জবাবে ইমরান খান বলেন, ওই এলাকা ১৮তম সংশোধনীর মাধ্যমে পাকিস্তানের প্রধান দুই বিরোধীদল দখল করেছে। তবে আগামী নির্বাচনে সিন্ধুতে তার দল জয় লাভ করবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এর আগে গত রবিবার প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আনা বিরোধীদের অনাস্থা প্রস্তাব ‘অসাংবিধানিক’ বলে খারিজ করে দেন পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদের ডেপুটি স্পিকার কাসিম খান সুরি। এরপর ইমরান খানের পরামর্শ মেনে পার্লামেন্ট ভেঙে দেন প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। অন্যদিকে ডেপুটি স্পিকারের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে যান বিরোধীরা।

About admin

Check Also

যুদ্ধ চলছে দেশে, ভারতে এসে বিয়ে করলেন রুশ তরুণ ও ইউক্রেনীয় তরুণী

প্রেম মানে না কোনো বাধা এই প্রবাদ বাক্যটি আবারও সত্য প্রমাণিত করেছে রাশিয়ার এক তরুণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.