২০৩০ সালে রমজান মাস ২টি

মুসলিম জাতির জন্য অতি তাৎপর্যপূর্ণ একটি মাস রমজান। প্রতিবছর এই মাসটি সিয়াম সাধনার মধ্যে দিয়ে পালন করে বিশ্ব মুসলিম জাতি। বছরে ক্যালেন্ডারে যেকোনো একটি মাস রমাজান হলেও ২০৩০ সালটি হবে ভিন্ন। এই বছর দুটি রমজান ও দুটি ঈদুল ফিতর পালন করবে মুসলিম জাতি।

ফলে ওই বছর মোট ৩টি ঈদ (২টি ঈদুল ফিতর এবং একটি ঈদুল আজহা) পালন করবে বিশ্বের মুসলিমরা। এ তথ্য নিতান্তই কাল্পনিক নয়। লুনার ক্যালেন্ডার অনুযায়ী এবং চাঁদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে এমনটিই বলেছেন বিশেষজ্ঞরা। খবর দ্য ইসলামিক ইনফরমেশন ও আলআরাবিয়া নিউজ।

চন্দ্র গবেষক মিনহাল খান তার টুইটার অ্যাকাউন্টে এ নিয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, লুনার ক্যালেন্ডার অনুযায়ী প্রতি বছর রমজান মাস ১০-১১ দিন এগিয়ে আসে। সে অনুযায়ী ২০৩০ সাল নাগাদ আমরা জানুয়ারিতে একটি রমজান পাবো এবং একই বছরের ডিসেম্বরে গিয়ে আরও একবার এই পবিত্র মাস পালনের সুযোগ পাবো।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দুবাইয়ের জ্যোতির্বিদ দলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান আহমেদ আল হারিরি। তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী আমরা এখন সৌর পঞ্জিকা ব্যবহার করি, যা সূর্যের সাথে সম্পর্কযুক্ত। তবে ইসলামে চাঁদের ওপর নির্ভরশীল লুনার ক্যালেন্ডার ব্যবহার করা হয়।

তাই ২০৩০ সালে দুটি রমজান পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি। তেমন হলে ২০৩০ সালটি হতে চলেছে ইসলামের ইতিহাসে এক অনন্য দিন। এই বছর পবিত্র রমজান দুবার পালনের সুযোগ পাবে মুসলিম জাতি। সেই সাথে একই বছরে ৩টি ঈদের আনন্দও উপভোগ করা যাবে।

মুসলিম জাতির জন্য অতি তাৎপর্যপূর্ণ একটি মাস রমজান। প্রতিবছর এই মাসটি সিয়াম সাধনার মধ্যে দিয়ে পালন করে বিশ্ব মুসলিম জাতি। বছরে ক্যালেন্ডারে যেকোনো একটি মাস রমাজান হলেও ২০৩০ সালটি হবে ভিন্ন। এই বছর দুটি রমজান ও দুটি ঈদুল ফিতর পালন করবে মুসলিম জাতি।

ফলে ওই বছর মোট ৩টি ঈদ (২টি ঈদুল ফিতর এবং একটি ঈদুল আজহা) পালন করবে বিশ্বের মুসলিমরা। এ তথ্য নিতান্তই কাল্পনিক নয়। লুনার ক্যালেন্ডার অনুযায়ী এবং চাঁদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে এমনটিই বলেছেন বিশেষজ্ঞরা। খবর দ্য ইসলামিক ইনফরমেশন ও আলআরাবিয়া নিউজ।

চন্দ্র গবেষক মিনহাল খান তার টুইটার অ্যাকাউন্টে এ নিয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, লুনার ক্যালেন্ডার অনুযায়ী প্রতি বছর রমজান মাস ১০-১১ দিন এগিয়ে আসে। সে অনুযায়ী ২০৩০ সাল নাগাদ আমরা জানুয়ারিতে একটি রমজান পাবো এবং একই বছরের ডিসেম্বরে গিয়ে আরও একবার এই পবিত্র মাস পালনের সুযোগ পাবো।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দুবাইয়ের জ্যোতির্বিদ দলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান আহমেদ আল হারিরি। তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী আমরা এখন সৌর পঞ্জিকা ব্যবহার করি, যা সূর্যের সাথে সম্পর্কযুক্ত। তবে ইসলামে চাঁদের ওপর নির্ভরশীল লুনার ক্যালেন্ডার ব্যবহার করা হয়।

তাই ২০৩০ সালে দুটি রমজান পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি। তেমন হলে ২০৩০ সালটি হতে চলেছে ইসলামের ইতিহাসে এক অনন্য দিন। এই বছর পবিত্র রমজান দুবার পালনের সুযোগ পাবে মুসলিম জাতি। সেই সাথে একই বছরে ৩টি ঈদের আনন্দও উপভোগ করা যাবে।

About admin

Check Also

চাঁদপুরে নির্মাণ হলো ‘আল্লাহর ৯৯ নামের স্তম্ভ’

চাঁদপুরের কচুয়ার কড়ইয়া ইউনিয়নে ব্যক্তি ও স্থানীয় বাসিন্দাদের আর্থিক সহায়তা নির্মিত হয়েছে আল্লাহর ৯৯ নামের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.