সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের রাস্তায় নামার আশঙ্কা, সতর্ক পুলিশ

ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষের ঘটনায় প্রতিবাদে সরব হচ্ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। গতকাল মঙ্গলবার নিউ মার্কেট এলাকায় ছাত্রদের সঙ্গে ব্যবসায়ীদের দিনভর সংঘর্ষের পর বুধবার (২০ এপ্রিল) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নামতে পারে বলে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাতটি কলেজের মধ্যে ঢাকা কলেজ, ইডেন ও কবি নজরুল কলেজ ছাড়াও রয়েছে বদরুন্নেসা কলেজ, সোহরাওয়ার্দী কলেজ, মিরপুর বাঙলা কলেজ ও তিতুমীর কলেজ। সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা যদি বিভিন্ন সড়কে বিক্ষোভে নামে তাহলে রাজধানীর অনেক সড়ক আটকে গেলে ভয়াবহ যানজট দেখা দেবে।

ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার মোহা, শফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভে নামতে পারে বলে আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি আছে। তবে বিভিন্ন কলেজ থেকে যদি ছাত্ররা রাস্তায় নেমে যায়, তখন তো আর নিয়ন্ত্রণে থাকে না। একটা কর্নার থেকে সে রকম চেষ্টা করা হচ্ছে, বিভিন্ন জায়গা থেকে নামানোর।

এদিকে মঙ্গলবারের সংঘর্ষের ঘটনায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের ব্যর্থতা রয়েছে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম বলেন, ব্যর্থতার কী আছে? সবাই মিলে চেষ্টা করা হচ্ছে। শিক্ষকরা চেষ্টা করছেন, ছাত্রনেতারা চেষ্টা করছেন, ব্যবসায়ী নেতারা চেষ্টা করছেন।

উল্লেখ্য, সোমবার রাতে ঢাকা কলেজের কয়েক শিক্ষার্থী নিউ মার্কেট এলাকায় দোকানকর্মীদের হাতে মারধরের শিকার হলে তার জেরে রাতের পর মঙ্গলবার দিনভর সংঘর্ষ চলে। এতে একজন নিহত এবং অর্ধশত আহত হন। কলেজ শিক্ষার্থী ও দোকানকর্মীদের সংঘর্ষের কারণে নিউ মার্কেট ও ঢাকা কলেজ সংলগ্ন মিরপুর সড়ক মঙ্গলবার সারাদিন বন্ধ ছিল। এতে তীব্র যানজট হয় রাজধানীর অন্য সড়কে।

সংঘর্ষের পর ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন ইডেন কলেজের শিক্ষার্থীরা; বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছেন পুরান ঢাকার কবি নজরুল কলেজের শিক্ষার্থীরা।

ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষের ঘটনায় প্রতিবাদে সরব হচ্ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। গতকাল মঙ্গলবার নিউ মার্কেট এলাকায় ছাত্রদের সঙ্গে ব্যবসায়ীদের দিনভর সংঘর্ষের পর বুধবার (২০ এপ্রিল) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নামতে পারে বলে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাতটি কলেজের মধ্যে ঢাকা কলেজ, ইডেন ও কবি নজরুল কলেজ ছাড়াও রয়েছে বদরুন্নেসা কলেজ, সোহরাওয়ার্দী কলেজ, মিরপুর বাঙলা কলেজ ও তিতুমীর কলেজ। সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা যদি বিভিন্ন সড়কে বিক্ষোভে নামে তাহলে রাজধানীর অনেক সড়ক আটকে গেলে ভয়াবহ যানজট দেখা দেবে।

ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার মোহা, শফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভে নামতে পারে বলে আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি আছে। তবে বিভিন্ন কলেজ থেকে যদি ছাত্ররা রাস্তায় নেমে যায়, তখন তো আর নিয়ন্ত্রণে থাকে না। একটা কর্নার থেকে সে রকম চেষ্টা করা হচ্ছে, বিভিন্ন জায়গা থেকে নামানোর।

এদিকে মঙ্গলবারের সংঘর্ষের ঘটনায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের ব্যর্থতা রয়েছে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম বলেন, ব্যর্থতার কী আছে? সবাই মিলে চেষ্টা করা হচ্ছে। শিক্ষকরা চেষ্টা করছেন, ছাত্রনেতারা চেষ্টা করছেন, ব্যবসায়ী নেতারা চেষ্টা করছেন।

উল্লেখ্য, সোমবার রাতে ঢাকা কলেজের কয়েক শিক্ষার্থী নিউ মার্কেট এলাকায় দোকানকর্মীদের হাতে মারধরের শিকার হলে তার জেরে রাতের পর মঙ্গলবার দিনভর সংঘর্ষ চলে। এতে একজন নিহত এবং অর্ধশত আহত হন। কলেজ শিক্ষার্থী ও দোকানকর্মীদের সংঘর্ষের কারণে নিউ মার্কেট ও ঢাকা কলেজ সংলগ্ন মিরপুর সড়ক মঙ্গলবার সারাদিন বন্ধ ছিল। এতে তীব্র যানজট হয় রাজধানীর অন্য সড়কে।

সংঘর্ষের পর ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন ইডেন কলেজের শিক্ষার্থীরা; বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছেন পুরান ঢাকার কবি নজরুল কলেজের শিক্ষার্থীরা।

About admin

Check Also

মরদেহ নিতে ম’র্গে হা’জির ৭ স্ত্রী, রুবেলের দাফন হবে যেখানে…অবশেষে নেওয়া হয়েছে সিদ্ধান্ত…

রাজধানীর উত্তরায় নির্মাণাধীন বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের ক্রেন থেকে গার্ডার ছিটকে নিহত আইয়ুব আলী …

Leave a Reply

Your email address will not be published.