সংঘর্ষের মধ্যেও আল আকসায় দেড় লাখ মুসল্লির জুমা আদায়

জেরুজালেমস্থ আল আকসা মসজিদে গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই সেখানে চলছে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর আগ্রাসন। এবে এই সকল আগ্রাসন, সংঘর্ষ ও ইসরাইলি পুলিশের কঠোর তল্লাশির মধ্যেও রমজানের তৃতীয় জুমার নামাজ আদায় করতে আল আকসায় হাজির হয়েছিলেন দেড় লাখ ফিলিস্তিনি। ।

জেরুজালেম ইসলামিক ওয়াকফের বরাতে এমন তথ্য জানিয়েছে আলজাজিরা।আল আকসার ওয়াকফ কাউন্সিলের পরিচালক আজ্জাম আল খতিব জানিয়েছেন, রমজানের তৃতীয় জুমায় আল আকসার ভেতর ও বাইর মিলে দেড় লাখেরও বেশি মুসল্লি জুমার নামাজে অংশ নিয়েছেন।

তিনি জানান, ইসরাইলি নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ফিলিস্তিনিরা সব সময় রমজান মাসে আল আকসা মসজিদে শুক্রবার নামাজ আদায় করতে আসেন।আল জাজিরা জানিয়েছে, গাজা ও পশ্চিম তীরের ৫০ বছরের কম বয়সী বাসিন্দাদের মসজিদে নামাজ পড়তে আসতে বাধা দেয় ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে আল কুদসের পুরাতন শহরের কয়েকটি রাস্তা বন্ধ করে রাখে তারা। জুমার খুতবায় খতিব শায়খ ইউসুফ আবু সাফিনাহ সাম্প্রতিক দিনগুলোতে ইসলামের অন্যতম পবিত্র মসজিদে ইসরাইলি বাহিনীর হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

গত কয়েক দিন ধরে মসজিদুল আকসার ভেতরে নিরস্ত্র ফিলিস্তিনিদের ওপর বেশ কয়েক দফা হামলা চালিয়েছে দখলদার ইসরাইলি বাহিনী। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবারও ফিলিস্তিনি মুসুল্লি ও দখলদারদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এতে অন্তত ৩১ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

প্রসঙ্গত, শুধুমাত্র রমজান মাসেই পশ্চিম তীর ও অবরুদ্ধ গাজার বাসিন্দারা অবাধে যে কোনও সময় আল আকসা কম্পাউন্ডে প্রবেশের সুযোগ পান। বছরের অন্য সময় এ সুযোগ থাকে না, তাই এমন সূবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করতে রাজি নন অনেক ফিলিস্তিনিই। দূরদূরান্ত থেকে ফিলিস্তিনি ও ইসরায়েলি পাসপোর্টধারী দেড় লাখ মুসলিম তাই দলে দলে এসেছিলেন আল আকসায় জুমার নামাজ পড়তে।

জেরুজালেমস্থ আল আকসা মসজিদে গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই সেখানে চলছে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর আগ্রাসন। এবে এই সকল আগ্রাসন, সংঘর্ষ ও ইসরাইলি পুলিশের কঠোর তল্লাশির মধ্যেও রমজানের তৃতীয় জুমার নামাজ আদায় করতে আল আকসায় হাজির হয়েছিলেন দেড় লাখ ফিলিস্তিনি। ।

জেরুজালেম ইসলামিক ওয়াকফের বরাতে এমন তথ্য জানিয়েছে আলজাজিরা।আল আকসার ওয়াকফ কাউন্সিলের পরিচালক আজ্জাম আল খতিব জানিয়েছেন, রমজানের তৃতীয় জুমায় আল আকসার ভেতর ও বাইর মিলে দেড় লাখেরও বেশি মুসল্লি জুমার নামাজে অংশ নিয়েছেন।

তিনি জানান, ইসরাইলি নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ফিলিস্তিনিরা সব সময় রমজান মাসে আল আকসা মসজিদে শুক্রবার নামাজ আদায় করতে আসেন।আল জাজিরা জানিয়েছে, গাজা ও পশ্চিম তীরের ৫০ বছরের কম বয়সী বাসিন্দাদের মসজিদে নামাজ পড়তে আসতে বাধা দেয় ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে আল কুদসের পুরাতন শহরের কয়েকটি রাস্তা বন্ধ করে রাখে তারা। জুমার খুতবায় খতিব শায়খ ইউসুফ আবু সাফিনাহ সাম্প্রতিক দিনগুলোতে ইসলামের অন্যতম পবিত্র মসজিদে ইসরাইলি বাহিনীর হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

গত কয়েক দিন ধরে মসজিদুল আকসার ভেতরে নিরস্ত্র ফিলিস্তিনিদের ওপর বেশ কয়েক দফা হামলা চালিয়েছে দখলদার ইসরাইলি বাহিনী। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবারও ফিলিস্তিনি মুসুল্লি ও দখলদারদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এতে অন্তত ৩১ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

প্রসঙ্গত, শুধুমাত্র রমজান মাসেই পশ্চিম তীর ও অবরুদ্ধ গাজার বাসিন্দারা অবাধে যে কোনও সময় আল আকসা কম্পাউন্ডে প্রবেশের সুযোগ পান। বছরের অন্য সময় এ সুযোগ থাকে না, তাই এমন সূবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করতে রাজি নন অনেক ফিলিস্তিনিই। দূরদূরান্ত থেকে ফিলিস্তিনি ও ইসরায়েলি পাসপোর্টধারী দেড় লাখ মুসলিম তাই দলে দলে এসেছিলেন আল আকসায় জুমার নামাজ পড়তে।

সুত্রঃ আল জাজিরা

About admin

Check Also

সংযুক্ত আরব আমিরাতে সড়ক দূর্ঘটনায় জাহাঙ্গীর আলম নামের এক প্রবাসী বাংলাদেশির করুন মৃ,ত্যু

সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাস আল খাইমাতে সড়ক দূর্ঘটনায় বোয়ালখালীর জাহাঙ্গীর আলমের করুন মৃ,ত্যু হয়েছে । …

Leave a Reply

Your email address will not be published.