গণকমিশনের অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ১১৬ জনকে ধর্ম ব্যবসায়ী আখ্যা দিয়ে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সমন্বয়ে ‘মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস’ তদন্তে গঠিত গণকমিশনের অভিযোগের কোনো আইনগত ভিত্তি নেই।

শুক্রবার (২০ মে) সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তজার্তিক সম্মেলন কেন্দ্রে লায়ন্স ক্লাবের ২৭তম বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠান শেষে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

কোন তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে তাদের ধর্ম ব্যবসায়ী বলা হয়েছে সেটি তিনি জানেন না উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, শ্বেতপত্রটি পর্যালোচনা করা হবে। এটি নিয়ে কেউ বিশৃঙ্খলা করলে শক্ত হাতে সেটি দমন করা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

রাজধানীতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নামে চাঁদাবাজি নিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে সতর্ক করে দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমার নামে চাঁদাবাজি করবে কেন। আইনের চোখে সবাই সমান। যে অপরাধ করবে তাকেই শাস্তি পেতে হবে। যে আমার নামে চাঁদাবাজি করতে গিয়েছিল তাকে ধরা হয়েছে,

তার কাছে একটি অস্ত্র পাওয়া গেছে। তিনি আরও বলেন, আমার নামে চাঁদাদাবির বিষয়টি শোনার পরই ব্যবস্থা নেয় র‌্যাব। যারা এ ধরনের চাঁদাবাজি করবে, সে যেই হোক তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

উল্লেখ্য, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম ব্যবহার করে চাঁদাবাজির অভিযোগে অস্ত্রসহ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সহসভাপতি দেলোয়ার হোসেন সাঈদী ওরফে সাহেদী হোসেন ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জুবায়েরকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। এ সময় সাঈদীর কাছ থেকে অস্ত্র, গুলি ও মাদক জব্দ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজির বিষয়টি স্বীকার করে সাঈদী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ১১৬ জনকে ধর্ম ব্যবসায়ী আখ্যা দিয়ে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সমন্বয়ে ‘মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস’ তদন্তে গঠিত গণকমিশনের অভিযোগের কোনো আইনগত ভিত্তি নেই।

শুক্রবার (২০ মে) সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তজার্তিক সম্মেলন কেন্দ্রে লায়ন্স ক্লাবের ২৭তম বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠান শেষে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

কোন তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে তাদের ধর্ম ব্যবসায়ী বলা হয়েছে সেটি তিনি জানেন না উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, শ্বেতপত্রটি পর্যালোচনা করা হবে। এটি নিয়ে কেউ বিশৃঙ্খলা করলে শক্ত হাতে সেটি দমন করা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

রাজধানীতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নামে চাঁদাবাজি নিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে সতর্ক করে দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমার নামে চাঁদাবাজি করবে কেন। আইনের চোখে সবাই সমান। যে অপরাধ করবে তাকেই শাস্তি পেতে হবে। যে আমার নামে চাঁদাবাজি করতে গিয়েছিল তাকে ধরা হয়েছে,

তার কাছে একটি অস্ত্র পাওয়া গেছে। তিনি আরও বলেন, আমার নামে চাঁদাদাবির বিষয়টি শোনার পরই ব্যবস্থা নেয় র‌্যাব। যারা এ ধরনের চাঁদাবাজি করবে, সে যেই হোক তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

উল্লেখ্য, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম ব্যবহার করে চাঁদাবাজির অভিযোগে অস্ত্রসহ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সহসভাপতি দেলোয়ার হোসেন সাঈদী ওরফে সাহেদী হোসেন ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জুবায়েরকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। এ সময় সাঈদীর কাছ থেকে অস্ত্র, গুলি ও মাদক জব্দ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজির বিষয়টি স্বীকার করে সাঈদী।

About admin

Check Also

হজ করতে গিয়ে ভিক্ষা, সৌদিতে বাংলাদেশি গ্রেপ্তার

সৌদি আরবে পবিত্র হজ পালন করতে গিয়ে ভিক্ষা করায় এক বাংলাদেশি হজযাত্রীকে আটক করেছে পুলিশ। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.