পুর্ব শত্রুতার জেরে পুুকুরে বিষ দিয়ে ২ লাখ টাকার মাছ হত্যা

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হরিশংকরপুর ইউনিয়নের পানমী গ্রামে এক মাছ চাষীর পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ মেরেছে প্রতিপক্ষরা। রোববার রাতে সদর উপজেলার মধ্যপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

ওই গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত মাছ চাষী বাবুল মন্ডল জানান, তিনি তার বাড়ির পাশের পুকুরে মাছ চাষ করছেন। ওই পুকুরে ৮ মাস আগে তিনি ৫টি বিভিন্ন জাতের মাছের পোনা অবমুক্ত করেন।

কয়েকদিনের মধ্যে মাছটি বিক্রির আশা ছিল তার। সোমবার সকালে তিনি পুকুরে মাছ খাওয়াতে গেলে মাছটিকে ভেসে উঠতে দেখেন। দুপুর নাগাদ পুকুরের সব মাছ মরে ভেসে যায়। এতে তার প্রায় দুই লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে।

বাবুল মন্ডলের অভিযোগ, প্রতিবেশী ছমির মোল্লার সঙ্গে বেশ কয়েকদিন ধরে তার ঝগড়া চলছিল। ৪ দিন আগে তার পুকুরে ঘেরাও করলে মাছ মেরে ফেলার হুমকি দেয় সে। রোববার রাতে বাড়িতে বৈঠকও করেন তারা। আমাদের সম্পূর্ণ সন্দেহ ছমির মোল্লা ও তার লোকজন আমার পুকুরের মাছগুলো বিষ দিয়ে মেরেছে।

হরিশংকরপুর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও ওই গ্রামের বাসিন্দা আবু আলম লালু জানান, পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ মারা একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী ছামির ও তার লোকজন বিরোধের সৃষ্টি করেছে বলে আমার ধারণা। মানুষের সাথে বিরোধ হতে পারে, তাই মাছ হত্যা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হরিশংকরপুর ইউনিয়নের পানমী গ্রামে এক মাছ চাষীর পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ মেরেছে প্রতিপক্ষরা। রোববার রাতে সদর উপজেলার মধ্যপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

ওই গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত মাছ চাষী বাবুল মন্ডল জানান, তিনি তার বাড়ির পাশের পুকুরে মাছ চাষ করছেন। ওই পুকুরে ৮ মাস আগে তিনি ৫টি বিভিন্ন জাতের মাছের পোনা অবমুক্ত করেন।

কয়েকদিনের মধ্যে মাছটি বিক্রির আশা ছিল তার। সোমবার সকালে তিনি পুকুরে মাছ খাওয়াতে গেলে মাছটিকে ভেসে উঠতে দেখেন। দুপুর নাগাদ পুকুরের সব মাছ মরে ভেসে যায়। এতে তার প্রায় দুই লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে।

বাবুল মন্ডলের অভিযোগ, প্রতিবেশী ছমির মোল্লার সঙ্গে বেশ কয়েকদিন ধরে তার ঝগড়া চলছিল। ৪ দিন আগে তার পুকুরে ঘেরাও করলে মাছ মেরে ফেলার হুমকি দেয় সে। রোববার রাতে বাড়িতে বৈঠকও করেন তারা। আমাদের সম্পূর্ণ সন্দেহ ছমির মোল্লা ও তার লোকজন আমার পুকুরের মাছগুলো বিষ দিয়ে মেরেছে।

হরিশংকরপুর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও ওই গ্রামের বাসিন্দা আবু আলম লালু জানান, পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ মারা একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী ছামির ও তার লোকজন বিরোধের সৃষ্টি করেছে বলে আমার ধারণা। মানুষের সাথে বিরোধ হতে পারে, তাই মাছ হত্যা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।

About admin

Check Also

নয় বছরের কিশোর ৬ মাসে হাফেজ!

মো. আফ্ফান মিয়া (৯)। সে উপজেলার দক্ষিণ শাহেদল গ্রামের মাহতাব উদ্দিন স্বপনের মেজ ছেলে। উপজেলার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.