ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ২০ লাখ টাকা পেলেন পোশাককর্মী পারভিন

ঈদুল আজহা উপলক্ষে সারা দেশে চলছে ওয়ালটনের ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-১৫। এর আওতায় ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ২০ লাখ টাকা পেয়েছেন গাজীপুর সদরের কাশিমপুরের লতিফপুর এলাকার পোশাককর্মী পারভিন আকতার।

মাত্র ৪ হাজার ৫৫০ টাকা ডাউনপেমেন্ট দিয়ে কিস্তি সুবিধায় ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে বিশাল অংকের এই টাকা পেলেন পারভিন। ওয়ালটনের একটি ফ্রিজ কিনেই বদলে গেলো সিঙ্গেল মাদার পারভিন এবং তার দুই সন্তানের কঠিন সংগ্রামী জীবন।

প্রসঙ্গত, অনলাইন অটোমেশনের মাধ্যমে গ্রাহকদের আরও দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে সারা দেশে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে ওয়ালটন। এর মাধ্যমে ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতিতে ক্রেতার নাম,

মোবাইল নাম্বার এবং বিক্রি করা পণ্যের মডেল নম্বরসহ বিস্তারিত তথ্য ওয়ালটনের সার্ভারে সংরক্ষণ করা হচ্ছে। ফলে, ওয়ারেন্টি কার্ড হারিয়ে ফেললেও দেশের যেকোনো ওয়ালটন সার্ভিস সেন্টার থেকে দ্রুত সেবা পাচ্ছেন গ্রাহক।

এ কার্যক্রমে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে উৎসাহিত করতে ঈদ উৎসবে ক্রেতারা ওয়ালটন ফ্রিজ, টিভি, এসি, ওয়াশিং মেশিন, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, ব্লেন্ডার, গ্যাস স্টোভ, রাইস কুকার ও ফ্যান কিনে ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত নিশ্চিত ক্যাশব্যাক এবং কোটি কোটি টাকার পণ্য ফ্রি পাচ্ছেন।

সোমবার (৩০ মে) বিকেলে গাজীপুর সদরের পানিশাইল ওয়ালটন প্লাজায় পারভিন আকতারের হাতে ২০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি’র ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর নজরুল ইসলাম সরকার এবং প্লাজা ট্রেডের সিইও মোহাম্মদ রায়হান।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর নাজনিন আক্তার, মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পারভিন আক্তার, ওয়ালটনের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এস এম জাহিদ হাসান, চিফ মার্কেটিং অফিসার ফিরোজ আলম,

হেড অব বিজনেস ইন্টেলিজেন্স আরিফুল আম্বিয়া, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর আমিন খান, প্লাজা ট্রেডের ডিসিইও আবুল কালাম আজাদ, সিনিয়র অ্যাডিশনাল অপারেটিভ ডিরেক্টর মীর মোহাম্মদ গোলাম ফারুক প্রমুখ।

ক্রেতা পারভিন আকতার জানান, তার বাড়ি ফরিদপুর সদরপুরের লালমিয়া সরকারের কান্দি গ্রামে। ১ ছেলে এবং ১ মেয়ের মা তিনি। স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয় অনেক আগেই। গাজীপুরের ‘বিগ বস’

নামের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করে দুই সন্তান নিয়ে কঠোর জীবন সংগ্রাম চলছে সহায়-সম্বলহীন পারভিনের। বাসার পুরনো ফ্রিজটি নষ্ট হয়ে যাওয়ায় কষ্ট করে সামান্য কিছু টাকা জমিয়ে ওয়ালটন থেকে কিস্তিতে ফ্রিজটি কেনেন তিনি। ওয়ালটনের ফ্রিজ কেনাটাই ভাগ্য বদলে দেয় পারভিন ও তার দুই সন্তানের।

অনুষ্ঠানে নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, ওয়ালটনের কাছে সব ক্রেতাই সমান গুরুত্বপূর্ণ। ২০ লাখ টাকার এই চেক হস্তান্তর প্রমাণ করে ওয়ালটন ক্রেতাদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি সঠিকভাবে পালন করে।

ক্রেতারা ওয়ালটনের পণ্য সাদরে গ্রহণ করছেন বলেই আমরাও মানুষকে এই ধরনের সুবিধা দিতে পারছি। ওয়ালটনের ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে লাখ লাখ ক্রেতার ভাগ্য পরিবর্তনের সহযোগী হতে পেরে আমরা আনন্দিত।

কর্তৃপক্ষ জানায়, ওয়ালটন ফ্রিজে এক বছরের রিপ্লেসমেন্টসহ কম্প্রেসরে ১২ বছরের গ্যারান্টি, ৫ বছরের ফ্রি বিক্রয়োত্তর সেবা, দেশব্যাপী বিস্তৃত ৭৭টি সার্ভিস সেন্টার থেকে দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবা পাওয়ার নিশ্চয়তা এবং সর্বোচ্চ ৩৬ মাসের সহজ কিস্তি সুবিধা রয়েছে।

About admin

Check Also

১৭ বছর বয়সে বিদেশ গেছি, সব কামাই বাবা-মাকে দিছি, আর বাড়ি ফিরে ৫ দিন ভাত পাইনি

যৌ’বনে সব কামাই তাদের (বাবা-মা) কে দিয়েছিলাম। ১৭ বছড় বয়সে সৌদি গিয়াছিলাম, মোচ উঠে নাই …

Leave a Reply

Your email address will not be published.