সরকার চাইলে খালেদা-তারেকের ফোনে কথা বলা বন্ধ করে দিতে পারে: মতিয়া চৌধুরী

এবার আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, শেখ হাসিনা উদার বলেই দণ্ডপ্রাপ্ত তারেক রহমান স্কাইপে আর তার মা খালেদা জিয়া ফোনে কথা বলতে পারছেন। গতকাল বুধবার শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার বারোমারী সাধু লিওর নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে উদ্দীপনামূলক উপহার প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় মতিয়া চৌধুরী বলেন, ইচ্ছে করলে সরকার তাদের (খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের) টেলিযোগাযোগের মাধ্যমে কথা বলা বন্ধ করে দিতে পারে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যার হৃদয় আকাশের মত উদার। তিনি প্রতিহিংসার রাজনীতি করেন না। তাই তিনি বিএনপির দণ্ডপ্রাপ্ত দুই নেতাকে কথা বলার সুযোগ দিয়েছেন

তিনি আরও বলেন, বিএনপি ও তাদের নেতারা অকৃতজ্ঞ। পৃথিবীর কোথাও দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি জেলখানায় বসে পরিচারিকা পান না। খালেদা জিয়া সে সুযোগ পেয়েছেন। দণ্ডিত হয়েও তিনি নিজের বাড়িতে বহাল তবিয়তে রয়েছেন। সকল সুযোগ সুবিধা ভোগ করছেন।

এ সময় খালেদা জিয়া ও এরশাদের আমলে কারাভোগের কথা উল্লেখ করে মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, বছরের পর বছর জেল খেটেছি। কিন্তু কোনোদিন ল্যান্ডসেটেও কথা বলার সুযোগ পাইনি।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী বলেই দেশের মানুষ শতভাগ বিদ্যুৎ পাচ্ছেন। ছেলে-মেয়েরা বছরের প্রথম দিন বিনামূল্যে নতুন বইয়ের সুবাস পাচ্ছে, মেয়েরা বাড়ি বসে উপবৃত্তির টাকা এবং করোনাকালে দরিদ্র মানুষ আড়াই হাজার করে টাকা তুলতে পারেন। মানবিক প্রধানমন্ত্রীর উদাহরণ হচ্ছেন শেখ হাসিনা।

এবার আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, শেখ হাসিনা উদার বলেই দণ্ডপ্রাপ্ত তারেক রহমান স্কাইপে আর তার মা খালেদা জিয়া ফোনে কথা বলতে পারছেন। গতকাল বুধবার শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার বারোমারী সাধু লিওর নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে উদ্দীপনামূলক উপহার প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় মতিয়া চৌধুরী বলেন, ইচ্ছে করলে সরকার তাদের (খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের) টেলিযোগাযোগের মাধ্যমে কথা বলা বন্ধ করে দিতে পারে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যার হৃদয় আকাশের মত উদার। তিনি প্রতিহিংসার রাজনীতি করেন না। তাই তিনি বিএনপির দণ্ডপ্রাপ্ত দুই নেতাকে কথা বলার সুযোগ দিয়েছেন

তিনি আরও বলেন, বিএনপি ও তাদের নেতারা অকৃতজ্ঞ। পৃথিবীর কোথাও দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি জেলখানায় বসে পরিচারিকা পান না। খালেদা জিয়া সে সুযোগ পেয়েছেন। দণ্ডিত হয়েও তিনি নিজের বাড়িতে বহাল তবিয়তে রয়েছেন। সকল সুযোগ সুবিধা ভোগ করছেন।

এ সময় খালেদা জিয়া ও এরশাদের আমলে কারাভোগের কথা উল্লেখ করে মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, বছরের পর বছর জেল খেটেছি। কিন্তু কোনোদিন ল্যান্ডসেটেও কথা বলার সুযোগ পাইনি।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী বলেই দেশের মানুষ শতভাগ বিদ্যুৎ পাচ্ছেন। ছেলে-মেয়েরা বছরের প্রথম দিন বিনামূল্যে নতুন বইয়ের সুবাস পাচ্ছে, মেয়েরা বাড়ি বসে উপবৃত্তির টাকা এবং করোনাকালে দরিদ্র মানুষ আড়াই হাজার করে টাকা তুলতে পারেন। মানবিক প্রধানমন্ত্রীর উদাহরণ হচ্ছেন শেখ হাসিনা।

এবার আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, শেখ হাসিনা উদার বলেই দণ্ডপ্রাপ্ত তারেক রহমান স্কাইপে আর তার মা খালেদা জিয়া ফোনে কথা বলতে পারছেন। গতকাল বুধবার শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার বারোমারী সাধু লিওর নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে উদ্দীপনামূলক উপহার প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় মতিয়া চৌধুরী বলেন, ইচ্ছে করলে সরকার তাদের (খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের) টেলিযোগাযোগের মাধ্যমে কথা বলা বন্ধ করে দিতে পারে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যার হৃদয় আকাশের মত উদার। তিনি প্রতিহিংসার রাজনীতি করেন না। তাই তিনি বিএনপির দণ্ডপ্রাপ্ত দুই নেতাকে কথা বলার সুযোগ দিয়েছেন

তিনি আরও বলেন, বিএনপি ও তাদের নেতারা অকৃতজ্ঞ। পৃথিবীর কোথাও দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি জেলখানায় বসে পরিচারিকা পান না। খালেদা জিয়া সে সুযোগ পেয়েছেন। দণ্ডিত হয়েও তিনি নিজের বাড়িতে বহাল তবিয়তে রয়েছেন। সকল সুযোগ সুবিধা ভোগ করছেন।

এ সময় খালেদা জিয়া ও এরশাদের আমলে কারাভোগের কথা উল্লেখ করে মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, বছরের পর বছর জেল খেটেছি। কিন্তু কোনোদিন ল্যান্ডসেটেও কথা বলার সুযোগ পাইনি।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী বলেই দেশের মানুষ শতভাগ বিদ্যুৎ পাচ্ছেন। ছেলে-মেয়েরা বছরের প্রথম দিন বিনামূল্যে নতুন বইয়ের সুবাস পাচ্ছে, মেয়েরা বাড়ি বসে উপবৃত্তির টাকা এবং করোনাকালে দরিদ্র মানুষ আড়াই হাজার করে টাকা তুলতে পারেন। মানবিক প্রধানমন্ত্রীর উদাহরণ হচ্ছেন শেখ হাসিনা।

About admin

Check Also

বিএনপি আরেকটি ৭৫ ঘটাতে চায়: শিক্ষামন্ত্রী

আজ বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, তারা আরেকটি ৭৫ ঘটাতে চায়। আজ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.