মা.রা গেছে ফেসবুকে লাইভ করা সেই ছেলে

চট্রগ্রামের বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুনের ঘটনায় নিজের ফেসবুক আইডি থেকে লাইভ করা তরুণ অলিউর রহমান মারা গেছেন। রোববার (৫ জুন) বেলা ১১ টায় তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন চাচা সুন্দর আলী।

অলিউর রহমান মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের ফটিগুলী গ্রামের আশিক মিয়ার ছেলে। সে সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে শ্রমিকের কাজ করতেন।

শনিবার (৪ জুন) রাত সাড়ে ৯টার দিকে চট্রগামের বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে সে তার মোবাইল থেকে ঘটনাস্থলে দাড়িয়ে ফেসবুকে লাইভ করছিলেন। ওই মূহুর্তে বিস্ফোরণে সেখানেই ছিটকে পড়েন ওই তরুণ

অলিউরের সহকর্মী রুয়েল আহমদ গনমাধ্যমেকে জানান, আমরা এই সময়টাতে খাবারের জন্য ডিপো থেকে চলে আসলেও ফেসবুকে লাইভ করার জন্য অলিউর সেখানে থেকে যায়। তার লাইভ ভিডিও দেখলেই সবকিছু বুঝা যাবে।

রুয়েল আহমদ আরোও বলেন, আগুন লাগার পর বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হচ্ছিল। এ ঘটনার ভয়াবহতা ছিল অনেক। বিস্ফোরণের ঘটনায় ডিপোর ভেতরে থাকা কেউ বেঁচে থাকার কথা নয়। আর অলিউর বেঁচে থাকলে আমার কাছেই আসত। কারণ আমরা একসঙ্গে কাজ করি। এক জায়গায়তেই থাকি। যখন বিস্ফোরণ ঘটে তখন মূলত রাতের খাবারের সময় ছিল। নয়তো আরও অনেক লোক মারা যেতেন।

চট্রগ্রামের বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুনের ঘটনায় নিজের ফেসবুক আইডি থেকে লাইভ করা তরুণ অলিউর রহমান মারা গেছেন। রোববার (৫ জুন) বেলা ১১ টায় বিডি২৪লাইভকে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন চাচা সুন্দর আলী।

অলিউর রহমান মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের ফটিগুলী গ্রামের আশিক মিয়ার ছেলে। সে সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে শ্রমিকের কাজ করতেন।

শনিবার (৪ জুন) রাত সাড়ে ৯টার দিকে চট্রগামের বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে সে তার মোবাইল থেকে ঘটনাস্থলে দাড়িয়ে ফেসবুকে লাইভ করছিলেন। ওই মূহুর্তে বিস্ফোরণে সেখানেই ছিটকে পড়েন ওই তরুণ

অলিউরের সহকর্মী রুয়েল আহমদ গনমাধ্যমেকে জানান, আমরা এই সময়টাতে খাবারের জন্য ডিপো থেকে চলে আসলেও ফেসবুকে লাইভ করার জন্য অলিউর সেখানে থেকে যায়। তার লাইভ ভিডিও দেখলেই সবকিছু বুঝা যাবে।

রুয়েল আহমদ আরোও বলেন, আগুন লাগার পর বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হচ্ছিল। এ ঘটনার ভয়াবহতা ছিল অনেক। বিস্ফোরণের ঘটনায় ডিপোর ভেতরে থাকা কেউ বেঁচে থাকার কথা নয়। আর অলিউর বেঁচে থাকলে আমার কাছেই আসত। কারণ আমরা একসঙ্গে কাজ করি। এক জায়গায়তেই থাকি। যখন বিস্ফোরণ ঘটে তখন মূলত রাতের খাবারের সময় ছিল। নয়তো আরও অনেক লোক মারা যেতেন।

চট্রগ্রামের বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুনের ঘটনায় নিজের ফেসবুক আইডি থেকে লাইভ করা তরুণ অলিউর রহমান মারা গেছেন। রোববার (৫ জুন) বেলা ১১ টায় বিডি২৪লাইভকে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন চাচা সুন্দর আলী।

অলিউর রহমান মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের ফটিগুলী গ্রামের আশিক মিয়ার ছেলে। সে সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে শ্রমিকের কাজ করতেন।

শনিবার (৪ জুন) রাত সাড়ে ৯টার দিকে চট্রগামের বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে সে তার মোবাইল থেকে ঘটনাস্থলে দাড়িয়ে ফেসবুকে লাইভ করছিলেন। ওই মূহুর্তে বিস্ফোরণে সেখানেই ছিটকে পড়েন ওই তরুণ

অলিউরের সহকর্মী রুয়েল আহমদ গনমাধ্যমেকে জানান, আমরা এই সময়টাতে খাবারের জন্য ডিপো থেকে চলে আসলেও ফেসবুকে লাইভ করার জন্য অলিউর সেখানে থেকে যায়। তার লাইভ ভিডিও দেখলেই সবকিছু বুঝা যাবে।

রুয়েল আহমদ আরোও বলেন, আগুন লাগার পর বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হচ্ছিল। এ ঘটনার ভয়াবহতা ছিল অনেক। বিস্ফোরণের ঘটনায় ডিপোর ভেতরে থাকা কেউ বেঁচে থাকার কথা নয়। আর অলিউর বেঁচে থাকলে আমার কাছেই আসত। কারণ আমরা একসঙ্গে কাজ করি। এক জায়গায়তেই থাকি। যখন বিস্ফোরণ ঘটে তখন মূলত রাতের খাবারের সময় ছিল। নয়তো আরও অনেক লোক মারা যেতেন।

About admin

Check Also

মরদেহ নিতে ম’র্গে হা’জির ৭ স্ত্রী, রুবেলের দাফন হবে যেখানে…অবশেষে নেওয়া হয়েছে সিদ্ধান্ত…

রাজধানীর উত্তরায় নির্মাণাধীন বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের ক্রেন থেকে গার্ডার ছিটকে নিহত আইয়ুব আলী …

Leave a Reply

Your email address will not be published.