১২ ঘণ্টায়ও নিয়ন্ত্রণে আসেনি আগুন, ডাকা হলো সেনাবাহিনী

গতকাল রাতে সীতাকুণ্ডের বিএম কন্টেইনার ডিপোতে লাগা আগুন ১২ ঘণ্টা ধরে জ্বলছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিস ও র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি ডাকা হয়েছে সেনাবাহিনীকে। আজ সকাল ১০টায় প্রায় ২০০ সদস্যের একটি সেনাবাহিনীর টিম আগুন নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছে। তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করেছেন।

এ তথ্য জানিয়েছেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার আশরাফ উদ্দীন। এর আগে গতকাল শনিবার রাত ১০টার দিকে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের পরই ডিপোতে থাকা আমদানি ও রফতানির বিভিন্ন মালামালবাহী কনটেইনারে আগুন ধরে যায়।

এই বিস্ফোরণে কম্পনের আওয়াজ এতটাই তীব্র ছিলো যে, আশেপাশের এলাকার অধিকাংশ বিল্ডিয়ের কাঁচের গ্লাস ভেঙে যায়। এই ঘটনায় ২১ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত তিন শতাধিক। সেখানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে

ডিপোতে থাকা রাসায়নিক পদার্থবাহী কনটেইনার থেকে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়। এদিকে সকাল ১০টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। কিছুক্ষণ পর পর বিস্ফোরণ হচ্ছে একের পর এক কন্টেইনার। ডিপো এলাকায় পানিশূন্য দেখা দিয়েছে। সেজন্য আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে বেগ পেতে হচ্ছে।

গতকাল রাতে সীতাকুণ্ডের বিএম কন্টেইনার ডিপোতে লাগা আগুন ১২ ঘণ্টা ধরে জ্বলছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিস ও র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি ডাকা হয়েছে সেনাবাহিনীকে। আজ সকাল ১০টায় প্রায় ২০০ সদস্যের একটি সেনাবাহিনীর টিম আগুন নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছে। তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করেছেন।

এ তথ্য জানিয়েছেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার আশরাফ উদ্দীন। এর আগে গতকাল শনিবার রাত ১০টার দিকে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের পরই ডিপোতে থাকা আমদানি ও রফতানির বিভিন্ন মালামালবাহী কনটেইনারে আগুন ধরে যায়।

এই বিস্ফোরণে কম্পনের আওয়াজ এতটাই তীব্র ছিলো যে, আশেপাশের এলাকার অধিকাংশ বিল্ডিয়ের কাঁচের গ্লাস ভেঙে যায়। এই ঘটনায় ২১ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত তিন শতাধিক। সেখানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে

ডিপোতে থাকা রাসায়নিক পদার্থবাহী কনটেইনার থেকে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়। এদিকে সকাল ১০টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। কিছুক্ষণ পর পর বিস্ফোরণ হচ্ছে একের পর এক কন্টেইনার। ডিপো এলাকায় পানিশূন্য দেখা দিয়েছে। সেজন্য আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে বেগ পেতে হচ্ছে।

গতকাল রাতে সীতাকুণ্ডের বিএম কন্টেইনার ডিপোতে লাগা আগুন ১২ ঘণ্টা ধরে জ্বলছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিস ও র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি ডাকা হয়েছে সেনাবাহিনীকে। আজ সকাল ১০টায় প্রায় ২০০ সদস্যের একটি সেনাবাহিনীর টিম আগুন নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছে। তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করেছেন।

এ তথ্য জানিয়েছেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার আশরাফ উদ্দীন। এর আগে গতকাল শনিবার রাত ১০টার দিকে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের পরই ডিপোতে থাকা আমদানি ও রফতানির বিভিন্ন মালামালবাহী কনটেইনারে আগুন ধরে যায়।

এই বিস্ফোরণে কম্পনের আওয়াজ এতটাই তীব্র ছিলো যে, আশেপাশের এলাকার অধিকাংশ বিল্ডিয়ের কাঁচের গ্লাস ভেঙে যায়। এই ঘটনায় ২১ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত তিন শতাধিক। সেখানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে

ডিপোতে থাকা রাসায়নিক পদার্থবাহী কনটেইনার থেকে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়। এদিকে সকাল ১০টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। কিছুক্ষণ পর পর বিস্ফোরণ হচ্ছে একের পর এক কন্টেইনার। ডিপো এলাকায় পানিশূন্য দেখা দিয়েছে। সেজন্য আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে বেগ পেতে হচ্ছে।

About admin

Check Also

মারে কী জবাব দিবো, ভাইয়ের তো মেডিকেল করার ডেট ছিল’

মারে কী জবাব দিবো? ভাইয়ের তো মেডিকেল করার ডেট ছিল। আমি শেষ হইয়া গেলাম ভাই। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.