মাস গেলে ৭০ হাজার বেতন, রাজধানীর নাম বলতে পারেন না স্কুল শিক্ষিকা, (ভিডিও)

বিজ্ঞানী ভিনটন জি কার্ফকে ই’ন্টারনেটের জনক বা আবিষ্কারক বলা হয়। ই’ন্টারনেট আবিষ্কারের পর এটির সবথেকে যু’গান্তকারী অবদান হল সোশ্যাল মিডিয়া।
এই আধুনিক যুগে ঘরে বসে বি’নোদনের মূলমন্ত্র হয়ে উঠেছে এই সো’শ্যাল মিডিয়া।

সোশ্যাল মিডিয়ার আরো দুটি নাম আছে যথা নেট দু’নিয়া এবং নেট মাধ্যম।শ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আ’মরা ঘরে বসেই সিনেমা থেকে শুরু করে খেলাধুলা নিমিষেই উপভোগ করতে পারি। সোশ্যাল মি’ডিয়া হলো এমন একটি প্ল্যাটফরম যেখানে যে কোন মুহূ’র্তে যে কোন কিছু ভাইরাল হয়ে যেতে পারে।

আপনি আগে থেকে হয়তো জানতে পারবেন না কোন ভিডিও হঠাৎ করে ভাইরাল হয়ে এই ভাইরাল তালিকায় থাকে নাচ এবং গানের ভিডিও। তার সঙ্গেই থাকে ছোটদের বিভিন্ন কা’ণ্ডকারখানা এবং বিভিন্ন মজার মজার ঘটনার ভিডিও।এছাড়াও কিছু কিছু ভিডিও থাকে পশু পাখির ভিডিও। কিন্তু কিছু কিছু ভিডিও আমাকে ভাবতে বাধ্য করে। কয়েকটি ভিডিও আমাদের একেবারে হতচকিত করে দেয়।

সোশ্যাল মিডিয়া বর্তমানে এমন একটি পথ আমাদের জন্য খুলে দিয়েছে, যার মাধ্যমে আমরা নিজেদের প্রতিভা তুলে ধরতে পারি পৃ’থিবীর কাছে। বর্তমানে একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ার উঠে এসেছে, যেখানে ভারতের শিক্ষাগত যো’গ্যতার নমুনা আমরা দেখানে হচ্ছে।

সাম্প্রতিক ভাইরাল হয় ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, তাতে এক যুবতী কাকলি রাজ্যে যা’কে শহী’দদের ভূমি বলা হয়। ভিডিওর শুরুতে প্রথম ফুটেছে যুবতী একটি প্রাইভেট স্কুলের পঞ্চম শ্রেণীর কক্ষে ঢুকে সেই শ্রেণীর শিক্ষিকাকে কিছু জিজ্ঞাসা করা হল ?

শিক্ষিকা বলেন, যে তিনি একসাথে বিভিন্ন ক্লাসের ছাত্রদের পরান। কারণ সেখানে অর্থাৎ সেই স্কুলের টিচারদের নেই তাই তাদের এরাম ভাবে ট্রেনিং দেওয়া হয়েছে। তিনি অর্থাৎ শিক্ষিকাটি বলেন যে সবে ৬ দিন আগেই তিনি এই স্কুলে জয়েন করেছেন।পরে সেই কক্ষের ছাত্রীদের জিজ্ঞাসা করা হল যে সানডে-মনডে পরপর বলে শোনাতে। কক্ষে থাকা কিছু ছাত্রী বলতে পারল আবার কিছু ছাত্রী বলতে পারল না।

আপনি আগে থেকে হয়তো জানতে পারবেন না কোন ভিডিও হঠাৎ করে ভাইরাল হয়ে এই ভাইরাল তালিকায় থাকে নাচ এবং গানের ভিডিও। তার সঙ্গেই থাকে ছোটদের বিভিন্ন কা’ণ্ডকারখানা এবং বিভিন্ন মজার মজার ঘটনার ভিডিও।এছাড়াও কিছু কিছু ভিডিও থাকে পশু পাখির ভিডিও। কিন্তু কিছু কিছু ভিডিও আমাকে ভাবতে বাধ্য করে। কয়েকটি ভিডিও আমাদের একেবারে হতচকিত করে দেয়।

সোশ্যাল মিডিয়া বর্তমানে এমন একটি পথ আমাদের জন্য খুলে দিয়েছে, যার মাধ্যমে আমরা নিজেদের প্রতিভা তুলে ধরতে পারি পৃ’থিবীর কাছে। বর্তমানে একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ার উঠে এসেছে, যেখানে ভারতের শিক্ষাগত যো’গ্যতার নমুনা আমরা দেখানে হচ্ছে।

সাম্প্রতিক ভাইরাল হয় ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, তাতে এক যুবতী কাকলি রাজ্যে যা’কে শহী’দদের ভূমি বলা হয়। ভিডিওর শুরুতে প্রথম ফুটেছে যুবতী একটি প্রাইভেট স্কুলের পঞ্চম শ্রেণীর কক্ষে ঢুকে সেই শ্রেণীর শিক্ষিকাকে কিছু জিজ্ঞাসা করা হল ?

শিক্ষিকা বলেন, যে তিনি একসাথে বিভিন্ন ক্লাসের ছাত্রদের পরান। কারণ সেখানে অর্থাৎ সেই স্কুলের টিচারদের নেই তাই তাদের এরাম ভাবে ট্রেনিং দেওয়া হয়েছে। তিনি অর্থাৎ শিক্ষিকাটি বলেন যে সবে ৬ দিন আগেই তিনি এই স্কুলে জয়েন করেছেন।পরে সেই কক্ষের ছাত্রীদের জিজ্ঞাসা করা হল যে সানডে-মনডে পরপর বলে শোনাতে। কক্ষে থাকা কিছু ছাত্রী বলতে পারল আবার কিছু ছাত্রী বলতে পারল না।

About admin

Check Also

যুদ্ধ চলছে দেশে, ভারতে এসে বিয়ে করলেন রুশ তরুণ ও ইউক্রেনীয় তরুণী

প্রেম মানে না কোনো বাধা এই প্রবাদ বাক্যটি আবারও সত্য প্রমাণিত করেছে রাশিয়ার এক তরুণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.