এ’ইমাত্র পা’ওয়াঃ বা’ড়লো বাস ভাড়া

দেশে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় পরিবহন মালিকদের দাবির মুখে বাড়লো বাস ভাড়া। রোববার (৭ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর বনানীতে বিআরটিএ কার্যালয়ে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর প্রেক্ষাপটে গণপরিবহনে ভাড়া পুনর্নির্ধারণে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) সঙ্গে বৈঠক বসেন পরিবহন মালিক সমিতির নেতারা। বৈঠক শেষে বাস ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিআরটিএ।

ডিজেলের দাম ২৩ শতাংশ বৃদ্ধি পাওয়ায় গড়ে ৪০ শতাংশের বেশি বাস ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে সড়ক পরিবহন মালিকেরা। বাংলাদেশ পরিবহন মালিক সমিতির নতুন প্রস্তাবে বলা হয়েছে, দূরপাল্লার বর্তমান বাসভাড়া প্রতি কিলোমিটারে ১ টাকা ৪২ পয়সা, তা বাড়িয়ে ২ টাকা করার প্রস্তাব হয়েছ্অযা

র্থাৎ এতে কিলোমিটারপ্রতি যাত্রীকে বাড়তি ৫৮ পয়সা গুনতে হবে। ভাড়া বৃদ্ধির এ হার ৪০.৮৫ শতাংশ। এছাড়া মহানগরে বাসের বর্তমান ভাড়া কিলোমিটারে ১.৭০ পয়সা, প্রস্তাব হয়েছে ২.৪০ পয়সা করার। এতে ৭০ পয়সা ভাড়া বাড়বে।

বাড়তি ভাড়ার এ শতকরা হার ৪১.১৮ শতাংশ। মহানগরে মিনিবাসের বর্তমান ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে ১.৬০ পয়সা। এটি বাড়িয়ে ২.৪০ পয়সা করার প্রস্তাব হয়েছে। এতে ভাড়া বাড়ে কিলোমিটারপ্রতি ৮০ পয়সা। ভাড়া বৃদ্ধির এ হার ৫০ শতাংশ।

অন্যদিকে মালিপক্ষের এই প্রস্তাবের জবাবে বিআরটিএ জানিয়েছে, বাস ভাড়া বাড়িয়ে দুরপাল্লায় কিলোমিটারে ১ টাকা ৮২ পয়সা ও মহানগরে ২ টাকা ১০ পয়সা করতে চায় তারা। সে হিসেবে দুরপাল্লায় বাস ভাড়া বাড়বে কিলোমিটারে ৪০ পয়সা ও মহানগরে বাস ভাড়া বাড়বে কিলোমিটার প্রতি ৪০ পয়সা করে। উভয়পক্ষের যেকোনো একটি প্রস্তাব চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে মন্ত্রণালয়ে।

এর আগে গত বুধবার রাতে ডিজেলের দাম ১৫ টাকা বা ২৩ শতাংশ বাড়িয়ে ৮০ টাকা নির্ধারণ করে জ্বালানি বিভাগ। বৃহস্পতিবার সকালেই পণ্যবাহী গাড়ির মালিক-শ্রমিকদের সংগঠন ধর্মঘটে যাওয়ার ডাক দেয়। জেলায় জেলায় বাস না চালানোর ঘোষণাও দেয়া হয়।

কেন্দ্রীয়ভাবে বাস মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতি বিআরটিএর কাছে ভাড়া যৌক্তিক হারে বাড়াতে আবেদন করে। সে আবেদনে লেখা ছিল, জেলায় জেলায় বাসমালিকরা বলছেন,

বিদ্যমান ভাড়ায় যাত্রী পরিবহন করলে তাদের লোকসান হবে। তাই তারা বাস চালাবেন না।বাস ও পণ্যবাহী যানবাহনের পাশাপাশি ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে শনিবার ধর্মঘটের ডাক দেন লঞ্চ মালিকেরাও। এতে দেশজুড়ে বিপাকে পড়েন সাধারণ যাত্রীরা।

অন্যদিকে মালিপক্ষের এই প্রস্তাবের জবাবে বিআরটিএ জানিয়েছে, বাস ভাড়া বাড়িয়ে দুরপাল্লায় কিলোমিটারে ১ টাকা ৮২ পয়সা ও মহানগরে ২ টাকা ১০ পয়সা করতে চায় তারা। সে হিসেবে দুরপাল্লায় বাস ভাড়া বাড়বে কিলোমিটারে ৪০ পয়সা ও মহানগরে বাস ভাড়া বাড়বে কিলোমিটার প্রতি ৪০ পয়সা করে। উভয়পক্ষের যেকোনো একটি প্রস্তাব চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে মন্ত্রণালয়ে।

এর আগে গত বুধবার রাতে ডিজেলের দাম ১৫ টাকা বা ২৩ শতাংশ বাড়িয়ে ৮০ টাকা নির্ধারণ করে জ্বালানি বিভাগ। বৃহস্পতিবার সকালেই পণ্যবাহী গাড়ির মালিক-শ্রমিকদের সংগঠন ধর্মঘটে যাওয়ার ডাক দেয়। জেলায় জেলায় বাস না চালানোর ঘোষণাও দেয়া হয়।

কেন্দ্রীয়ভাবে বাস মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতি বিআরটিএর কাছে ভাড়া যৌক্তিক হারে বাড়াতে আবেদন করে। সে আবেদনে লেখা ছিল, জেলায় জেলায় বাসমালিকরা বলছেন,

বিদ্যমান ভাড়ায় যাত্রী পরিবহন করলে তাদের লোকসান হবে। তাই তারা বাস চালাবেন না।বাস ও পণ্যবাহী যানবাহনের পাশাপাশি ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে শনিবার ধর্মঘটের ডাক দেন লঞ্চ মালিকেরাও। এতে দেশজুড়ে বিপাকে পড়েন সাধারণ যাত্রীরা।

About admin

Check Also

বিয়ে বাড়িতে নতুন বউকে গোসল দেওয়ার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে, (ভিডিও)

যখন ছেলে এবং মেয়ের বিয়ে হয় বরের বাড়িতে বর কে এবং কনের বাড়িতে কনেকে অনেক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *