নিজের স্বপ্ন পূরণ করতে হেলিকপ্টারে করে বউ আনলেন ডিশ ব্যবসায়ী!

কুমিল্লার হোমনা উপজেলায় এক ডিশ ব্যবসায়ী নববধূকে বাড়ি নিয়ে এলেন হেলিকপ্টারে করে। শনিবার (২৩ জুলাই) বিকেলে জেলার হোমনা উপজেলার চান্দেরচর ইউনিয়নের চান্দেরচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ডিশ ব্যবসায়ী বর সাইফুল ইসলাম জেলার হোমনার চান্দেরচর গ্রামের আমিরুল ইসলামের ছেলে । বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চান্দেরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক। শনিবার (২৩ জুলাই) বিকেলে জেলার হোমনা উপজেলার চান্দেরচর ইউনিয়নের চান্দেরচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক বলেন, পার্শ্ববর্তী ঘাগুটিয়া ইউনিয়নের দড়িরচর গ্রামের জয়নাল আবেদীনের মেয়ে সুমাইয়া আক্তারের সঙ্গে শনিবার বিকেলে বিয়ে হয় সাইফুলের। এ সময় বাবার ইচ্ছা পূরণে বরের সাজে হেলিকপ্টারে করে কনের বাড়িতে যান সাইফুল।

পরে বিয়ে সম্পন্ন হলে নতুন বউ নিয়ে হেলিকপ্টারে করে নিজ বাড়িতে ফেরেন। কনের বাড়ির দড়িরচর ঈদগাহ মাঠে হেলিকপ্টারে করে আসা বরকে দেখতে জনতা ভিড় করেন।বর সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘বাবার ইচ্ছা ছিল আমি বিয়ের সময় যেন বউকে হেলিকপ্টারে আনতে পারি।

আল্লাহর রহমতে বাবার ইচ্ছা পূরণ হয়েছে।’বরের বাবা আমিরুল ইসলাম বলেন, ‘আমার দীর্ঘদিনের আশা ছিল সাইফুল বিয়ে করে হেলিকপ্টারে নববধূকে বাড়ি নিয়ে আসবে। সেই প্রত্যাশা ছেলে পূরণ করেছে। আমি খুশি হয়েছি।’ তিনি ছেলে ও পুত্রবধূর জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

কুমিল্লার হোমনা উপজেলায় এক ডিশ ব্যবসায়ী নববধূকে বাড়ি নিয়ে এলেন হেলিকপ্টারে করে। শনিবার (২৩ জুলাই) বিকেলে জেলার হোমনা উপজেলার চান্দেরচর ইউনিয়নের চান্দেরচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ডিশ ব্যবসায়ী বর সাইফুল ইসলাম জেলার হোমনার চান্দেরচর গ্রামের আমিরুল ইসলামের ছেলে । বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চান্দেরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক। শনিবার (২৩ জুলাই) বিকেলে জেলার হোমনা উপজেলার চান্দেরচর ইউনিয়নের চান্দেরচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক বলেন, পার্শ্ববর্তী ঘাগুটিয়া ইউনিয়নের দড়িরচর গ্রামের জয়নাল আবেদীনের মেয়ে সুমাইয়া আক্তারের সঙ্গে শনিবার বিকেলে বিয়ে হয় সাইফুলের। এ সময় বাবার ইচ্ছা পূরণে বরের সাজে হেলিকপ্টারে করে কনের বাড়িতে যান সাইফুল।

পরে বিয়ে সম্পন্ন হলে নতুন বউ নিয়ে হেলিকপ্টারে করে নিজ বাড়িতে ফেরেন। কনের বাড়ির দড়িরচর ঈদগাহ মাঠে হেলিকপ্টারে করে আসা বরকে দেখতে জনতা ভিড় করেন।বর সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘বাবার ইচ্ছা ছিল আমি বিয়ের সময় যেন বউকে হেলিকপ্টারে আনতে পারি।

আল্লাহর রহমতে বাবার ইচ্ছা পূরণ হয়েছে।’বরের বাবা আমিরুল ইসলাম বলেন, ‘আমার দীর্ঘদিনের আশা ছিল সাইফুল বিয়ে করে হেলিকপ্টারে নববধূকে বাড়ি নিয়ে আসবে। সেই প্রত্যাশা ছেলে পূরণ করেছে। আমি খুশি হয়েছি।’ তিনি ছেলে ও পুত্রবধূর জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

About admin

Check Also

উত্তরায় বিস্ফোরণে দগ্ধ একে একে ৮ জনেরই মৃত্যু

রাজধানীর তুরাগের কামারপাড়ায় ভাঙারির দোকানে বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ ৮ জনের ই মৃত্যু ঘটেছে। সর্বশেষ শুক্রবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.