অবশেষে মাশরাফিকে ভিলেন বানাতে চাওয়া বোর্ড কর্তাদের নাম প্রকাশ্যে

দীর্ঘ দিন জাতীয় দলের বাহিরে আছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। আবার কবে বল হাতে তাকে মাঠে দেখা যাবে সেটি বলা মুশকিল।তবে এখনো খেলা চালিয়ে যেতে চান টাইগার দলের এই সাবেক ওয়ানডে অধিনায়ক। মাঝে মধ্যে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড(বিসিবি) ও জাতীয় দল নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলে থাকেন মাশরাফি।

তার মন্তব্য নিয়ে ক্রিকেট মহলে বেশ আলোচনা-সমালোচনা হয়ে থাকে। তবে এবার মাশরাফি জানালেন তাঁর মনের কষ্টের কথা। যে কষ্ট নাকি কখনই ভুলতে পারবেন না তিনি দেশের ক্রিকেটের অভিভাবক

বিসিবির দুই বোর্ড পরিচালক নাকি মাশরাফিকে ভিলেন বানানোর জন্য মিডিয়াতে ফোন দিয়েছিলেন নিউজ করার জন্য।যে বিষয়টি জানতে পেরে কষ্ট পান মাশরাফি।

ইংল্যান্ডে ওয়ানডে বিশ্বকাপে মাশরাফি বল হাতে ছিলেন বিবর্ণ।খারাপ সেই সময় বিসিবিকে পাশে পাননি মাশরাফি বরং তাকে মানুষের সামনে খারাপ বানানোর জন্য উঠে পড়ে লেগেছিলো বোর্ডের পরিচালকরা।

এই প্রসঙ্গে মাশরাফি দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন,’ইংল্যান্ডে বসে বিসিবির দুই জন বোর্ড পরিচালক মিডিয়াতে ফোন দিয়ে বলেছে,আমাদের সামনে সুযোগএসেছে।মাশরাফিকে নিয়ে নিউজ করে দেন।মানুষের সামনে মাশরাফিকে ভিলেন বানিয়ে দেন।

এমন কথা সেই সময় জানার পর হতবাক হয়ে যান মাশরাফি!বিশ্বাস করতে পারছিলেন না এমন কথা বোর্ডের পক্ষ থেকে কেউ বলবেন।তখন তিনি বুঝতে পেরেছেন অন্য খেলোয়াড়দের সঙ্গে কত কিছুই না হয়েছে।

তবে সেই দুই বোর্ড পরিচালকের নাম বলতে রাজি হননি মাশরাফি।তিনি আরও বলেন, সত্যি একটা জিনিস যা কোন দিন আটকে রাখা যায় না।উপরে আল্লাহ আছে তিনি বিচার করবেন। আপনি বাদ দিতে পারেন কিন্তু সম্মানহানী করতে পারেন না

বিসিবির দুই বোর্ড পরিচালক নাকি মাশরাফিকে ভিলেন বানানোর জন্য মিডিয়াতে ফোন দিয়েছিলেন নিউজ করার জন্য।যে বিষয়টি জানতে পেরে কষ্ট পান মাশরাফি।

ইংল্যান্ডে ওয়ানডে বিশ্বকাপে মাশরাফি বল হাতে ছিলেন বিবর্ণ।খারাপ সেই সময় বিসিবিকে পাশে পাননি মাশরাফি বরং তাকে মানুষের সামনে খারাপ বানানোর জন্য উঠে পড়ে লেগেছিলো বোর্ডের পরিচালকরা।

এই প্রসঙ্গে মাশরাফি দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন,’ইংল্যান্ডে বসে বিসিবির দুই জন বোর্ড পরিচালক মিডিয়াতে ফোন দিয়ে বলেছে,আমাদের সামনে সুযোগএসেছে।মাশরাফিকে নিয়ে নিউজ করে দেন।মানুষের সামনে মাশরাফিকে ভিলেন বানিয়ে দেন।

এমন কথা সেই সময় জানার পর হতবাক হয়ে যান মাশরাফি!বিশ্বাস করতে পারছিলেন না এমন কথা বোর্ডের পক্ষ থেকে কেউ বলবেন।তখন তিনি বুঝতে পেরেছেন অন্য খেলোয়াড়দের সঙ্গে কত কিছুই না হয়েছে।

তবে সেই দুই বোর্ড পরিচালকের নাম বলতে রাজি হননি মাশরাফি।তিনি আরও বলেন, সত্যি একটা জিনিস যা কোন দিন আটকে রাখা যায় না।উপরে আল্লাহ আছে তিনি বিচার করবেন। আপনি বাদ দিতে পারেন কিন্তু সম্মানহানী করতে পারেন না

About admin

Check Also

ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে বিদেশির ‘দুর্ব্যবহার’, ভিডিও ভাইরাল

রাজধানীর তেজগাঁও ট্রাফিক বিভাগের অধীন থাকা রাওয়া ক্লাবের সামনের রাস্তায় ট্রাফিক পুলিশের এক সদস্যকে লক্ষ্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *